অবশেষে ভারতীয় পড়ুয়াদের ফেরাতে রাজি চিন

কোভিড অতিমারির সময়ে ভারতে ফিরে এসেছিলেন চিনে (China) পাঠরত ভারতীয় পড়ুয়ারা। কিন্তু তারপরে তাঁরা পড়াশোনা করতে চিনে ফিরে যেতে পারেননি। কারণ ভারতীয় পড়ুয়াদের (Indian Students) ফেরাতে রাজি হচ্ছিল না চিন। শুক্রবার চিনের তরফ থেকে জানান হয়েছে, কিছু সংখ্যক ভারতীয় পড়ুয়া ফিরে এসে পড়াশোনা করতে পারে।

প্রসঙ্গত, অতিমারি কিছুটা স্তিমিত হওয়ার পরেও চিনে গিয়ে অফলাইন ক্লাসে যোগ দিতে পারেননি ভারতীয় পড়ুয়ারা। প্রায় ২২ হাজার ভারতীয় পড়ুয়া চিনে পড়াশোনা করছেন। কিন্তু অফলাইন ক্লাস করতে না পারায় তাঁদের অসুবিধা হচ্ছে। সেই কথা চিনকে জানান হয় ভারতের তরফ থেকে। গত ১৭ মার্চ ভারতীয় বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচী জানিয়েছিলেন, চিনের বিধিনিষেধের ফলে ভারতীয় পড়ুয়ারা ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন। কিন্তু বেজিংয়ের তরফ থেকে কোনও সদুত্তর পাওয়া যায়নি। গত ২০ এপ্রিল ভারতে চিনা পর্যটকদের টুরিস্ট ভিসা বাতিল করে ভারত।

চিনা বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান এদিন সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন। সেখানেই তিনি ঘোষণা করেন, ‘ভারতীয় পড়ুয়াদের অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে দেখে চিন। আমরা চাই তাঁরা চিনে ফিরে আসুন। এখানে থেকেই পড়াশোনা করুন।’ এই প্রসঙ্গে ভারতের সঙ্গে চিনের আলোচনা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই চিনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে ইউজিসি। আগাম অনুমতি না থাকলে নির্দিষ্ট কিছু চিনা বিশ্ববিদ্যালয়ের অনলাইন পাঠ্যক্রমের ডিগ্রি ভারতে মান্যতা পাবেনা, এমন ঘোষণা করে ইউজিসি। একই সময়ে ভারত সফরে এসেছিলেন চিনের বিদেশমন্ত্রী ওয়াং ই। ভারতের বিদেশমন্ত্রী এস জয়শংকরের সঙ্গে তাঁর বৈঠকেও উঠে আসে পড়ুয়াদের প্রসঙ্গ। এতদিন পরে ভারতের চাপের মুখেই পড়ুয়াদের বিষয়ে সদর্থক পদক্ষেপ নিল চিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

16 + four =