সেলেবদের উপস্থিতিতে চাঁদের হাট অযোধ্যায়, সাবেকি পোশাকে উপস্থিত সকলেই

অভিনেত্রীরা শাড়ি আর অভিনেতারা পাঞ্জাবি, কেউ ধুতি, কুর্তা কেউ বা চোস্তা, কেউ আবার শেরওয়ানি।

রামলালার প্রাণ প্রতিষ্ঠা উপলক্ষে গোটা বলিউডই আজ সোমবার হাজির হয়েছে অযোধ্যায়। সকলেরই সাজ সনাতনী। একেবারে অন্যরকম লুকে দেখা গেল আলিয়া ভাট থেকে রণবীর, আয়ুষ্মান খুরানাদের। অমিতাভ বচ্চন থেকে দক্ষিণী সুপারস্টার কে ছিল না সেখানে। তবে, এর মধ্যেও সলমন, আমির ও শাহরুখের অনুপস্থিতিতে তৈরি হয়েছে প্রশ্ন।শোনা যাচ্ছে, তাঁরা নাকি ডাক পাননি। আর তা নিয়েই জল্পনা।

যদিও বাকি সেলেবদের এদিন দেখা গিয়েছে খোশ মেজাজে সেলফি তুলতে। মুম্বইয়ের বিমানবন্দরে নজর কাড়েন রণবীর কাপুর এবং আলিয়া ভাট। তাদের সঙ্গে দেখা গিয়েছে রোহিত শেট্টিকেও । অমিতাভ বচ্চন ও ছেলে অভিষেক দুজনেই পরে এসেছিলেন অফ হোয়াইট পাঞ্জাবি।  আলিয়ার পরনে একটি সমুদ্রনীল শাড়ি। সঙ্গে বাহারি শাল। চুলে আলগা খোঁপা। মোটের উপর একেবারে ছিমছাম সাবেকি সাজ। মুম্বই বিমানবন্দরে ক্যাটরিনাকেও দেখা গিয়েছে শাড়ি পরে। অন্যদিকে, রণবীর কাপুরকে দেখা গেল একেবারে বাঙালিদের মতো ধুতি-পাঞ্জাবিতে।  সাদা পাঞ্জাবির সঙ্গে সুতোর কাজ করা সাদা শাল ছিল গায়ে। আয়ুস্মান খুরানাকেও দেখা গেল সনাতনী সাজে। তিনি পরেছেন পাজামা-পাঞ্জাবি, সঙ্গে ট্র্যাডিশনাল শাল। রামচরণ, চিরঞ্জীবি সকলেই পরেছিলেন পাঞ্জাবি, গায়ে ছিল শাল।

রামলালার প্রাণপ্রতিষ্ঠার ঐতিহাসিক মুহূর্তের সাক্ষী থাকতে অযোধ্যায়  পৌঁছে গিয়েছেন চিরঞ্জীবী, রামচরণ, বিবেক ওবেরয়, মধুর ভাণ্ডারকর, অনুপম খের, সোনু নিগমরা। থাকছেন অমিতাভ বচ্চন, রণবীর কপূর, আলিয়া ভাট, আয়ুষ্মান খুরানা, মাধুরী দীক্ষিত, জ্যাকি শ্রফ থেকে ভিকি কৌশল-ক্যাটরিনা কাইফরা।

এমন ‘মহোৎসব’-এ তবে কেন ডাক পেলেন না শাহরুখ খান, আমির খান, সলমন খানরা?  সে বিষয়ে নানা লোকের নানা মত। এমনিতে শাহরুখের স্ত্রী গৌরী হিন্দু পরিবারের মেয়ে। তাঁর বাড়িতে পুজো-অর্চনা হয়। আমিরেরও আগের দুই স্ত্রী ছিলেন বাঙালি।পুজোর পরিবেশ ছিল বাড়িতে। শাহরুখও বাড়িতে ধুমধাম করে গণপতির পুজো করেন। দিওয়ালি পালন করেন।

তবু কেন ডাক পেলেন না তাঁরা!ইন্ডাস্ট্রির বিভিন্ন ঘনিষ্ঠ মহলে জল্পনা, রামমন্দিরে উদ্বোধনে তিন খান ডাক পাননি তাঁদের ধর্মের কারণে। মুসলিম বলেই নিমন্ত্রণ করা হল না তাঁদের। যদিও এই বিষয়ে প্রকাশ্যে মুখ খোলেননি তাঁরা।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *