ফের হাওড়াতে সক্রিয় বাবরি মাফিয়ারা, জোর করে কম দামে বাবরি বিক্রিতে চাপ ব্যবসায়ীকে

হাওড়া : বেশ কয়েক বছর পর ফের সক্রিয় হাওড়ার বাবরি(ছাঁট লোহা) মাফিয়ারা। জোর করে কম দামে বাবরি অর্থাৎ ছাঁট লোহা বিক্রির চাপ ব্যবসায়ীকে। ব্যবসায়ীর কারখানাতে গিয়ে পরিবারের সদস্যকে মারধর ও প্রাণ নাশের হুমকিও দেয় মাফিয়ারা বলে অভিযোগ। এই বাবরি মাফিয়াদের দ্বারা আক্রান্ত হলো দুই ব্যবসায়ী। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে হাওড়ার জগাছা থানার জি আই পি কলোনীতে। পুলিশ সূত্রে খবর, জগাছা থানার আড়ু পাড়ার বাসিন্দা ব্যবসায়ী শান্তনু সামন্ত, তিনি একটি ছাঁট লোহার কারখানা চালান।

শুক্রবার রাতে চার বাবরি মাফিয়া চড়াও হয় শান্তনু বাবুর কারখানায়। তারা শান্তনু সামন্ত-কে ১৫ টাকা কিলো দরে বাবরি বিক্রি করতে চাপ দেন। সেই সময় শান্তনুবাবু তাদের ৩০ টাকা কেজি দরে বিক্রির দাবি জানান। বাবরি মাফিয়ারা শান্তনু বাবুকে ১৫ টাকা কিলো দরেই বাবরি বিক্রি করতে হবে বলে একপ্রকার বাধ্য করতে শুরু করেন। তারা হুমকি দেয়, তাদের পছন্দের দামে বাবরি না দিলে তাদেরকে তোলা দিতে হবে। এমনই জানা যায় পুলিশ সূত্রে। এই নিয়ে শুরু হয় মাফিয়া ও ব্যবসায়ীর মধ্যে বচসা। ঘটনাস্থলে শান্তনু বাবুর ছেলে সায়ন এলে তাকে বেধড়ক মারধোর করে ওই চার দুষ্কৃতী। তার মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয় এবং পরিবার-কে প্রাণ নাশের হুমকিও দেয় তারা। চিৎকার চেঁচামেচির আওয়াজ শুনে ছুটে আসে স্থানীয় কয়েকজন বাসিন্দা।

ওই বাসিন্দাদেরকেও বেধড়ক মারধর করা হয় বলে অভিযোগ ওঠে। এক এলাকাবাসীর হাতে গুরুতর আঘাত লাগে। সায়ন ও ওই এলাকাবাসীকে হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হলে তাদের ওখানেই ভর্তি করা হয়। এই ঘটনার পরে শুক্রবার রাত দশটা নাগাদ জগাছা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে আক্রান্ত ওই ব্যবসায়ীর পরিবার। যদিও এখনো ওই দুষ্কৃতীদের কাউকেই গ্রেফতার করতে পারেনি জগাছা থানার পুলিশ। দুষ্কৃতীদের ধরার জন্য ইতিমধ্যে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে জগাছা থানা সূত্রের খবর। তবে অভিযুক্তরা এখনো অধরা থাকায় যথেষ্টই আতঙ্কে রয়েছেন ওই ব্যবসায়ী ও তার পরিবার। গোটা ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ও আতঙ্ক ছড়ায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × 5 =