গ্রীষ্মের শুরুতেই জলের হাহাকার, জনস্বাস্থ্য কারিগরি দপ্তরের গাফিলতির অভিযোগে অবরোধ

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাঁকুড়া: দীর্ঘ এক বছরেরও বেশি সময় ধরে জল সরবরাহ হয় অনিয়মিত বলে অভিযোগ। বছরের অন্যান্য মরসুমে কোনও ক্রমে জলের চাহিদা মেটালেও গ্রীষ্ম পড়তেই জলের জন্য হাহাকার শুরু হয়েছে বিভিন্ন গ্রামে। জনস্বাস্থ্য কারিগরি দপ্তরের গাফিলতির কারণেই এমন অবস্থা অভিযোগ তুলে দেশুড়িয়া মোড় থেকে ফুলবেড়িয়া যাওয়ার রাস্তায় রামহরিপুর মোড়ের কাছে পথ অবরোধ করে বিক্ষোভে ফেটে পড়লেন এলাকাবাসী।
বাঁকুড়ার গঙ্গাজলঘাটি ব্লকের কাপিষ্টা গ্রাম পঞ্চায়েতের চড়াডিহি, বিড়রা, শুয়াড়া, রামহরিপুর গ্রামে জল সরবরাহের জন্য জনস্বাস্থ্য কারিগরি দপ্তরের পাইপ লাইন রয়েছে। এই পাইপ লাইন থেকেই গ্রামের মানুষ পানীয় জল থেকে শুরু করে গৃহস্থালির প্রয়োজনীয় জল সংগ্রহ করতেন। কিন্তু সম্প্রতি পাইপ লাইনের সেই জল সরবরাহ অনিয়মিত হয়ে পড়ে বলে অভিযোগ। স্থানীয়দের দাবি, অন্যান্য মরসুমে নলবাহিত পানীয় জল না মিললেও কোনও ক্রমে পরিস্থিতি সামাল দিতেন গ্রামের মানুষ। কিন্তু গ্রীষ্ম পড়তে না পড়তেই ওই এলাকায় জলের বিকল্প উৎসগুলি শুকিয়ে যাওয়ায় চরম জলকষ্ট শুরু হয়েছে গ্রামগুলিতে। এই পরিস্থিতিতে বারবার জল সরবরাহের দায়িত্বে থাকা সংস্থাকে জানিয়েও লাভ না হওয়ায় এবার রাস্তায় নেমে পথ অবরোধের পথে হাঁটলেন স্থানীয়রা।
আজ মঙ্গলবার বাঁকুড়ার দেশুড়িয়া মোড় থেকে ফুলবেড়িয়া মোড় যাওয়ার রাস্তায় রামহরিপুর মোড়ে পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন এলাকার মানুষ। খবর পেয়ে স্থানীয় কাপিষ্টা গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান অবরোধস্থলে গিয়ে অবরোধকারীদের বুঝিয়ে অবরোধ প্রত্যাহারের চেষ্টা করলেও, লিখিত প্রতিশ্রুতি না মেলা পর্যন্ত অবরোধ চালিয়ে যাওয়ার হুঁশিয়ারি দেন অবরোধকারীরা।
গ্রাম পঞ্চায়েতের উপ প্রধানের দাবি, পঞ্চায়েতে আগে কোনও অভিযোগ জমা পড়েনি। তা সত্ত্বেও জনস্বাস্থ্য কারিগরি দপ্তর ও ব্লক প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলে দ্রুত জল সরবরাহ স্বাভাবিক করার চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

15 + 20 =