চিনে ফের ঊর্ধ্বমুখী করোনা সংক্রমণ, পিছোল এশিয়ান গেমস

চলতি বছরেই চিনে বসতে চলেছিল এশিয়ান গেমসের আসর। কিন্তু শুক্রবার জানানো হয়, গেমস আপাতত পিছিয়ে দেওয়া হচ্ছে। কবে শুরু হবে এশিয়ান গেমস? সেই উত্তর পাওয়া যায়নি। পরবর্তীকালে এশিয়াডের নতুন তারিখ ঘোষণা করা হবে বলে জানান হয়েছে।

অলিম্পিক কাউন্সিল অফ এশিয়ার তরফ থেকে জানান হয়, “চিনের হাংঝৌ শহরে অনুষ্ঠিত হতে চলা ১৯তম এশিয়ান গেমস পিছিয়ে দেওয়া হচ্ছে। সেপ্টেম্বর মাসের ১০ তারিখ থেকে ২৫ তারিখ পর্যন্ত গেমস চলার কথা ছিল। গেমসের নতুন সময়সূচি পরে ঘোষণা করা হবে।” চিনা সংবাদমাধ্যমগুলিতেই প্রথম প্রকাশিত হয় এই খবর।

কিন্তু কেন আচমকা পিছিয়ে দেওয়া হল এশিয়ান গেমস? চিনের সাম্প্রতিক কোভিড পরিস্থিতি দেখেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। দু’বছরের বেশি ধরে চলা অতিমারীর মধ্যে সবচেয়ে খারাপ পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছে চিন। গত এক মাস ধরে চিনে বেশ ঊর্দ্ধমুখী ছিল কোভিড সংক্রমণ। অন্যতম প্রধান শহর সাংহাইয়ে কড়া লকডাউনের পাশাপাশি চলছিল কোভিড পরীক্ষাও। যদিও কিছুদিন আগেই সাংহাই প্রশাসন জানিয়েছিল, এখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। করোনা ঠেকাতে বরাবরই খুব কড়া পদক্ষেপ করেছে চিন সরকার। সাংহাইয়ে লকডাউন চলাকালীন অমানবিক কড়াকড়ির ছবি দেখে শিউরে উঠেছে গোটা বিশ্ব। গেমস চলাকালীন বিদেশ থেকে আসা খেলোয়াড়দের থেকে সংক্রমণ ছড়াতে পারে, এমন আশঙ্কাও থেকে যাচ্ছে।

আয়োজক শহর হাংঝৌয়ের থেকে সাংহাইয়ের দূরত্ব খুবই কম। সেই কারণেই হয়তো সংক্রমণ ঠেকাতে গেমস বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। কিছুদিন আগেই শহরের প্রশাসন জানিয়েছিল, সকল বাসিন্দাদের কোভিড পরীক্ষা করতে হবে। সেই কারণে বিনামূল্যে কোভিড পরীক্ষার জন্য নতুন করে দশ হাজারটি কেন্দ্র তৈরি করা হয়েছে। প্রসঙ্গত, কোভিডের কারণে পিছিয়ে দেওয়া হয়েছিল অলিম্পিকও। ২০২০ সালের বদলে ২০২১ সালে টোকিওতে অলিম্পিক আয়োজন করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

13 − four =