বিধি ভেঙে টাকা বিলির অভিযোগ তৃণমূলের বিধায়কের বিরুদ্ধে

নিজস্ব প্রতিবেদন, আসানসোল: রাজ্যের বেশ কিছু লোকসভা কেন্দ্রের মধ্যে আসানসোল লোকসভা কেন্দ্রকে অর্থনৈতিক সেনসেটিভ জোন হিসাবে ঘোষণা করেছে জাতীয় নির্বাচন কমিশন। ঘোষণার কয়েক ঘণ্টা আগে আসানসোল লোকসভা কেন্দ্রে নির্বাচন বিধিভঙ্গ করে টাকা বিলি করার অভিযোগ উঠল পাণ্ডবেশ্বরের বিধায়ক নরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী বিরুদ্ধে।
মঙ্গলবার কুলটির ডিসেরগড়ে পীর বাবার একটি মাজারে গিয়েছিলেন বিধায়ক তথা তৃণমূলের পশ্চিম বর্ধমান জেলা সভাপতি নরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী। সেখানে তিনি চাদরও চড়ান। এরপরই দেখা যায় মাজার চত্বরে থাকা বেশ কিছু মানুষদের মধ্যে নরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী টাকা বিলি করছেন। আর বিধায়কের টাকা বিলির ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে যায় মুহূর্তে। এই ঘটনায় বিরোধীরা অভিযোগ করছে মডেল কোড অফ কন্ডাক্ট ভেঙে টাকা দিয়ে মানুষকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করছে বিধায়ক নরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী। যদিও বিধায়ক এ বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে চাননি। বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যেই সরব হয়েছে বিজেপি এবং কংগ্রেসের জেলা নেতৃত্ব। পশ্চিম বর্ধমানের বিজেপির জেলা সভাপতি বাপ্পা চট্টোপাধ্যায়ের অভিযোগ, শুধু লোকসভা ভোটে নয় এর আগে পঞ্চায়েত ভোট এবং লোকসভা ও নির্বাচনে নরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী কয়লা বালি ও গোরু পাচারের টাকা বিলি করেছেন এলাকায়। মানুষজনকে তৃণমূলের ভোট দেওয়ার জন্য হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন। এটা তাঁর বরাবরেরই স্বভাব বিজেপি এই টাকা বিলির ঘটনা নিয়ে নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ জানাবে। কংগ্রেস নেতা দেবেশ চক্রবর্তী জানান, নিন্দনীয় ঘটনা। নির্বাচন কমিশনের কাছে নালিশ জানাবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *