অশনির টানে অন্ধ্র উপকূলে ভেসে এল রহস্যময় সোনালী রথ

ঘূর্ণিঝড় অশনির প্রভাবে উত্তাল অন্ধ্রপ্রদেশ উপকূল সংলগ্ন সমুদ্র। বুধবার সকালে দিল্লির মৌসম ভবন থেকে জানানো হয়েছে, ঘূর্ণিঝড় অশনি অন্ধ্রপ্রদেশ উপকূলের কাছাকাছি চলে এসেছে। তবে অশনি এখন অনেকটাই শক্তি হারিয়েছে। প্রবল ঘূর্ণিঝড় থেকে সে এখন ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়েছে। তবে এখনও অন্ধ্রপ্রদেশের উপকূলবর্তী এলাকাগুলিতে লাল সতর্কতা জারি রয়েছে। রাজধানী বিশাখাপত্তনমেও চলছে ভারী বৃষ্টিপাত। আর তার মধ্যেই শ্রীকাকুলামের সুন্নাপল্লি হারবারে ভেসে এল সোনালি রঙের এক রহস্যময় রথ (Golden Chariot)।

স্থানীয় নওপাড়া থানার সাব ইন্সপেক্টর জানিয়েছেন মঙ্গলবারই ওই রহস্যময় রথটি ভেসে আসে উপকূলে। তবে সেটি কোথা থেকে ভেসে এল তা এখনও স্পষ্ট নয়। পুলিশের ধারনা রথটি অন্য কোনও দেশ থেকে ভেসে এসেছে। জানা গিয়েছে সমুদ্রে মাছ ধরতে যাওয়া মৎসজীবীদের চোখেই প্রথম ওই সোনালি রথটি ধরা পড়েছিল। তারাই সেটিকে পাড়ে তুলে নিয়ে আসে। রহস্যময় রথটি দেখতে পাড়ে জড়ো হয়েছেন স্থানীয়রা।

অনেকেই মনে করছেন, রথটি অন্য কোনও দেশ থেকেই ভেসে এসেছে। বিশেষ করে সোনালি রথটির গঠনের সঙ্গে দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার মন্দিরগুলির গঠনের সাদৃশ্য থাকায়, সেই দিকের কোনও দেশ থেকেই রথটি ভেসে এসেছে বলে মনে করা হচ্ছে। অনেকের ধারণা মায়ানমার, ইন্দোনেশিয়া কিংবা থাইল্যান্ডই রহস্যময় রথটির উৎস। তবে রথটির উৎস সম্পর্কে আরও একটি মত রয়েছে। অনেকে মনে করছেন বিদেশ নয় ভারতেরই কোনও উপকূল থেকে রথটি ভেসে এসেছে। তাদের মতে কাছাকাছি এলাকার কোনও উপকূলে সম্ভবত সিনেমার শ্যুটিং চলছিল। সেখান থেকেই রথটি ভেসে এসেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × five =