দুয়ারে রেশন ঘিরে তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে মারপিট, রণক্ষেত্র দেগঙ্গা

তৃণমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠী কোন্দল আবারও প্রকাশ্যে। রাজ্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্বপ্নের প্রকল্প দুয়ারে রেশন ঘিরে রণক্ষেত্র দেগঙ্গা উত্তর চাঁদপুর এলাকা। ঘটনার জেরে পঞ্চায়েত সদস্য সহ দুই পক্ষের প্রায় ১০ জন আহত। বুধবার ঘটনার পরপরই ঘটনাস্থলে দেগঙ্গা থানার পুলিশ লাঠি উঁচিয়ে দুই পক্ষকে তাড়া করে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে।
শাসকদলের দুই গোষ্ঠীর আদি ও নব্য তৃণমূল মধ্যে গণ্ডগোলের সূত্রপাত। আদি তৃণমূলের দাবি তাদের রেশন সামগ্রী দেওয়া হচ্ছে না। তাদের অভিযোগ, নব্য তৃণমূল কর্মীদের রেশন সামগ্রী দেওয়া হচ্ছে। তা নিয়ে রেশন ডিলারকে রেশন সামগ্রী দেওয়ার জন্যে ফোন করে আদি তৃণমূল কর্মীরা। কেন ফোন করা হয় ডিলারকে তা নিয়ে প্রশ্ন করে গ্রাম সদস্য। আর তা নিয়েই গণ্ডগোল। প্রথমে দুই পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি, হাতাহাতি, এক পক্ষ আরেক পক্ষের উপরে লাঠি, বাঁশ, ইট নিয়ে হামলা করে দুই পক্ষেরই পঞ্চায়েত সদস্য-সহ ১০ জন গুরুতর জখম হয়। খবর পেয়ে দেগঙ্গা থানার বিশাল পুলিশবাহিনী আসে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে পুলিশ দুই পক্ষকে লাঠি উঁচিয়ে ধাওয়া করে। তবে ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। আহতদের স্থানীয় বিশ্বনাথপুর স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে চিকিৎসা করানো হয়েছে। এদের মধ্যে ৩ জনের আঘাত বেশ গুরুতর। বিষয়টি নিয়ে মুখে কুলুপ এটেছেন তৃণমূল নেতারা। বিজেপি বিষয়টি নিয়ে কটাক্ষ করতে ছাড়েনি। বিজেপির দাবি, বিরোধীরা সরকারি সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে বলে অভিযোগ জানাচ্ছিল। এবার ক্ষোদ তৃণমূল কর্মী সমর্থকেরাই রেশন থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। এর থেকেই প্রমাণ রাজ্যের অবস্থা কোথায় গিয়ে দাঁড়িয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

seven + 20 =