কেক কেটে শতবর্ষ পালন শতাব্দী প্রাচীন ৫২ নম্বর বাস রুটের

হাওড়া ও কলকাতা: জন্ম শতবার্ষিকী। জন্মের ১০০ বছর পালন হয় কৃতী মানুষদের। পালন হয় হেরিটেজ তকমা প্রাপ্ত অনেক কিছুরই। কিন্তু তাই বলে জন্ম শববর্ষ বাস রুটের?

রবিবার এমন ঘটনারই সাক্ষী থাকল হাওড়ার রামরাজাতলা। সেজে উঠল বাস, বাসস্ট্যান্ড। ৫২ নম্বর বাস রুট। বর্তমান তাকে এই নামেই চেনে। এই রুটেরই জন্ম শতবর্ষ পালন হল কেক কেটে, ঘটা করে। জন্মশতবর্ষ পালনের উদ্যোক্তাদের মুখেই জানা গেল, ১৯২২ সাল থেকে এই বাস রুটের যাত্রা শুরু। তবে, তখন কোনও নাম ছিল না এই বাস রুটের। বাসের সংখ্যাও ছিল কম। রামরাজাতলা থেকে হাওড়া স্টেশন পর্যন্ত বাস চলত। পরে দেশ স্বাধীন হলে এই রুটের নাম দেওয়া হয়। আজ যাকে সকলে ৫২ নম্বর বাস রুট বলেই চেনেন।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ থেকে আজকের রুশ-ইউক্রেন যুদ্ধ। ট্রাম থেকে টোটো। কত পরিবর্তনেরই না সে সাক্ষী এই রুট! একসময় এই রুটে বাসভাড়া ছিল ৫ পয়সা, কয়লা দিয়ে চলত বাস। তারপর ২০, ৫০ পয়সা, একটাকা এই ভাবে ভাড়া বাড়তে থাকে।

এই রাজ্যের অন্যতম প্রাচীন বাসরুট ৫২ নং রামরাজাতলা-হাওড়া, যা পরে সম্প্রসারিত হয়েছে ধর্মতলা পর্যন্ত। এছাড়া ৫২-র আরও কিছু রুট ছিল। ৫২ খটিরবাজার থেকে হাওড়া, ৫২ ইছাপুর থেকে এসপ্ল্যানেড, ৫২এ সুরকিকল থেকে এসপ্ল্যানেড, ৫২এ রামরাজতলা থেকে এসপ্ল্যানেড হয়ে ব্রাবোর্ন রোড, ৫২বি স্ট্র্যান্ড রোড হয়ে রামরাজতলা থেকে এসপ্ল্যানেড, ৫২সি হাওড়া ময়দান থেকে এসপ্ল্যানেড এবং ৫৮ চ্যাটার্জিহাট থেকে এসপ্ল্যানেড। ৫২-৫৮ রুট বাস মালিক সংগঠনের সম্পাদক ভোলানাথ চৌধুরী জানালেন, এই রুটকে তাঁরা হেরিটেজ করার দাবি জানাচ্ছেন সরকারের কাছে। তাঁর কথায়, এই ১০০ বছরের প্রাচীন রুটের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে রয়েছে ৩০০ বছরের প্রাচীন জনপদ রামারাজাতলার ইতিহাস। পুরানো ইতিহাসের দলিল দস্তাবেজ ঘেঁটে দেখা যায় এই ৫২ নং রুট  হাওড়া শহরের প্রথম ও রাজ্যের অন্যতম প্রাচীন বাস রুটগুলির মধ্যে অন্যতম। যা শুরু হয়েছিল ১৯২২ সালে। শ্রীরামপুরের ৩ নম্বর রুটের মতোই সুপ্রাচীন এই বাস রুট।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

twenty − eleven =