পাকিস্তানে হিন্দু তরুণীকে গুলি করে খুন!

পাকিস্তানে (Pakistan) ১৮ বছরের হিন্দু তরুণী পূজা কুমারীর মৃত্যু ঘিরে তোলপাড়। সিন্ধ প্রদেশের বাসিন্দা হিন্দু তরুণীকে গুলি করে খুন করা হয়েছে। তারপর তাঁর দেহ ছুঁড়ে ফেলে দেওয়া হয় রাস্তায়। অভিযোগ, ওয়াহিদ বক্স লাশারি নামের অভিযুক্ত পূজাকে ধর্মান্তরিত (Conversion) করে বিয়ে করতে চেয়েছিল। তাতে রাজি না হওয়াতেই সে খুন করে ওই তরুণীকে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ইমরান সরকারকে কাঠগড়ায় তুলছে বিরোধীরা। তাদের দাবি, ইমরানের আমলে পাকিস্তানে সংখ্যালঘুদের উপরে নির্যাতন বহু গুণ বেড়ে গিয়েছে।

পাকিস্তানের সংবাদমাধ্য়মগুলির দাবি, ওয়াহিদ ঘটনার দিন পূজার বাড়ি গিয়েছিল। সেখান থেকে পূজাকে অপহরণের চেষ্টা করছিল সে। কিন্তু পূজা আপত্তি করায় বন্দুক বের করে তাকে গুলি করে অভিযুক্ত। তারপর দেহটি ফেলে দেয় রাস্তায়।
ইতিমধ্যেই ট্রেন্ডিং হয়ে গিয়েছে ‘জাস্টিস ফর পূজা’ (justice for Pooja)। যদিও পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে অভিযুক্তকে। কিন্তু তার কঠোর সাজার দাবিতে সরব পূজার পরিবার।

সংখ্যালঘুদের উপরে নির্যাতন পাকিস্তানে বেড়েই চলেছে। এই পরিস্থিতিতে পূজা কুমারীর হত্যাকাণ্ড ঘিরে শুরু হয়েছে প্রতিবাদ। দেশের নানা প্রান্তেই পূজার খুনির কঠোর শাস্তির দাবি করে মিছিল বেরিয়েছে। মিছিলে বিক্ষোভকারীদের স্লোগান দিতে দেখা গিয়েছে, ‘ইনসাফ দো, দহেশতগর্দি বন্ধ করো।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

one + twenty =