২৫ বছর বয়সেই টেনিসকে বিদায় জানালেন বিশ্বের ‘এক নম্বর’ অ্যাশলে বার্টি

একদিকে ৪০ বছর বয়সেও যখন টেনিস কোর্ট দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন সেরেনা উইলিয়ামস, তখন সকলকে চমকে দিয়ে মাত্র ২৫ বছর বয়সেই কেরিয়ারে ইতি টানলেন অ্যাশলে বার্টি। বিশ্বের এক নম্বর তারকার এমন সিদ্ধান্ত যেন বিশ্বাসই করতে পারছেন না তাঁর অনুরাগীরা।

চলতি বছরই অস্ট্রেলিয়ান ওপেন চ্যাম্পিয়ন হন বার্টি। কিন্তু মাস দুয়েক যেতে না যেতেই টেনিস কোর্ট থেকে সরে দাঁড়ানোর কথা ঘোষণা করে দিলেন। কেন এমন সিদ্ধান্ত? মাত্র পঁচিশেই কেন ব়্যাকেট তুলে রাখছেন তিনি? ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও পোস্ট করে নিজেই দিলেন উত্তর। তিনটি গ্র্যান্ড স্ল্যামজয়ী অজি তারকা লিখেছেন, “কীভাবে অবসরের কথাটা ঘোষণা করব বুঝতে পারছিলাম না। খুব কঠিন ব্যাপার। টেনিস আমায় যা দিয়েছে তাতে আমি খুব খুশি। টেনিসে আমি পূর্ণতা পেয়েছি। এই মুহূর্তে এটাই সঠিক সিদ্ধান্ত মনে হয়েছে। ব়্যাকেটটা তুলে রেখে নিজের অন্য স্বপ্নগুলোর পিছনে দৌড়নোর সময় এসেছে। অ্যাথলিট বার্টির থেকে এবার অ্য়াশ বার্টিকে বেশি করে ভালবাসতে চাই।”

বার্টি জানিয়েছেন তিনি সাংবাদিক বৈঠক করে নিজের অবসরের কথা জানাবেন। বিশ্ব টেনিস সংস্থা টুইটারে বার্টির অবসরের কথা জানিয়ে লিখেছে, “বিশ্বের এক নম্বর টেনিস তারকা অ্যাশলে বার্টি অবসর ঘোষণা করেছেন। নিজের সেরা সময়ে এই সিদ্ধান্ত নিলেন তিনি। একজন খেলোয়াড় নিজের সেরা সময়ে থাকাকালীন সরে যাচ্ছেন, এমনটা সাধারণত দেখা যায় না। তাই বার্টি যা করেছেন তাতে তিনি বিশ্ব টেনিসের হল অফ ফেমে জায়গা করে নেবেন।”

২০১৯ সালে প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম জিতেছিলেন বার্টি। মাত্র ২৩ বছরে ফরাসি ওপেন চ্যাম্পিয়ন হয়ে তাক লাগান তিনি। গতবছর জেতেন উইম্বলডন। আর চলতি বছর ঘরের মাটিতে আসে কেরিয়ারের তৃতীয় গ্র্যান্ড স্ল্যাম। কেরিয়ারে ১৫টি সিঙ্গলস এবং ১২টি ডাবলস ট্রফি জিতেছেন তিনি। টোকিও অলিম্পিকে মিক্সড ডাবলস বিভাগে দেশকে ব্রোঞ্জ এনে দিয়েছিলেন বার্টি। টেনিসের পাশাপাশি তাঁকে ক্রিকেট খেলতেও দেখা গিয়েছিল মাঝে। তাই এবার অন্য খেলার মাঠে তাঁকে দেখলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eight − 6 =