তৃণমূল কর্মীকে গরম লোহার রড ঢুকিয়ে খুনের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদন, বর্ধমান: শনিবার রাতের অন্ধকারে এক তৃণমূল কর্মীকে গরম লোহার রড কানে ঢুকিয়ে খুন করা হয় বলে অভিযোগ। মৃতের নাম শুভাশিস মহন্ত। পুরানো শত্রুতার জন্যই এই খুন বলে অভিযোগ মহন্ত পরিবারের। ঘটনাটি বর্ধমান শহরের ১০নম্বর ওয়ার্ড অফিসার্স কলোনি এলাকার। এলাকায় সমস্ত মানুষের সাহায্যে তিনি এগিয়ে আসতেন বলে দাবি এলাকাবাসীর। শুভাশিসের মৃত্যুর খবরে স্তম্ভিত এলাকার বাসিন্দারা। এই ঘটনায় এলাকায় ছড়িয়েছে চাঞ্চল্য। শঙ্কর ঘোষ নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে অভিযোগ পরিবারের।
বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রবিবার সকাল ৯টা নাগাদ শুভাশিসের মা মন্দিরা দেবীর দাবি, ‘আমার ছেলে বহু বছর ধরে তৃণমূল কংগ্রেস করত ১০নম্বর ওয়ার্ডে। ছেলের জীবনে পার্টি সব কিছু ছিল। শনিবার রাতে বাড়ি ফেরার সময় রাস্তায় শঙ্কর ঘোষের সঙ্গে বচসা হয় এবং শঙ্কর আমার ছেলের কানে লোহার গরম রড ঢুকিয়ে দিয়ে পালিয়ে যায়। শুভাশিসকে তড়িঘড়ি রাতেই বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে এলে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। পুলিশ প্রশাসনের কাছে মন্দিরা দেবীর দাবি, ‘আমার ছেলের খুনিকে দৃষ্ঠান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে।’
মৃতদেহ রবিবার ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয় বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। এই খবর পাওয়া মাত্রই বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজের মর্গে মৃতের পরিবারের সঙ্গে দেখা করেন বিধায়ক খোকন দাস। ২৪ঘণ্টার মধ্যে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করতে হবে বলে দাবি করেন বিধায়ক খোকন দাস। এই খুনে মূল অভিযুক্ত হিসাবে শঙ্কর ঘোষের নামে বর্ধমান সদর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন তৃণমূল কর্মী শুভাশিস মহন্তের মা মন্দিরা মহন্ত। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে বর্ধমান থানার পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *