মুখ্যমন্ত্রীর পথশ্রী প্রকল্পের ফেস্টুন কেটে দেওয়াকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা মালদায়

মালদা: লোকসভা নির্বাচন ঘোষণা হতে পুরাতন মালদায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির ফেস্টুন কেটে দেওয়াকে ঘিরে উত্তেজনা ছড়ালো। ঘটনাটি ঘটেছে পুরাতন মালদা থানার মঙ্গলবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের নলডুবি এলাকায়। স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বের অভিযোগ, বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা এই অপকর্ম করেছে। যদিও পাল্টা বিজেপির নেতৃত্বের অভিযোগ, এই ঘটনার পিছনে তৃণমূলের একাংশ যুক্ত রয়েছে। এখন বিজেপির ঘাড়ে দোষ চাপিয়ে বদনাম দেওয়া হচ্ছে। পুরো বিষয়টি নিয়ে মঙ্গলবাড়ি তৃণমূলের অঞ্চল কমিটির নেতা রিপন বর্মন পুরাতন মালদা থানায় নির্দিষ্ট কয়েকটি নাম দিয়ে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। তৃণমূল নেতা রিপনবাবু জানিয়েছেন, যাদের নাম পুলিশের কাছে অভিযোগে দেওয়া হয়েছে, তারা প্রত্যেকেই বিজেপি কর্মী।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, নলডুবি এলাকার ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কের পাশেই বিশাল একটি মুখ্যমন্ত্রীর মমতা ব্যানার্জির পথশ্রী প্রকল্পের ফেস্টুন রয়েছে। সোমবার সকালে স্থানীয় তৃণমূলের কর্মীরা ওই ফেস্টুনের অর্ধেক অংশই কাটা অবস্থায় দেখতে পান। এরপরই রাজনৈতিক শোরগোল শুরু হয়। পরে বিষয়টি নিয়ে পুলিশে অভিযোগ জানানো হয়।

পুরাতন মালদা মহিলা তৃণমূল নেত্রী মৃণালিনী মণ্ডল মাইতি জানিয়েছেন, এই ঘটনার পিছনে বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা জড়িত রয়েছে। লোকসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে এলাকায় সন্ত্রাসের বাতাবরণ তৈরি করার সৃষ্টি করছে বিরোধীদল বিজেপি। পুরো বিষয়টি পুলিশকে জানানো হয়েছে।

মঙ্গলবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের বিজেপি দলের সদস্য শিবু কর্মকার জানিয়েছেন, যে অভিযোগ তৃণমূল করছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা। এই ঘটনার সঙ্গে আমাদের দলের কেউ যুক্ত নেই। বরঞ্চ তৃণমূলের গোষ্ঠীকোন্দলের জেরেই তাদের দলের নেত্রীর ফেস্টুন কাটার ঘটনাটি ঘটেছে। এদিকে পুরো বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুরাতন মালদা থানার পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *