পর্যটন শিল্পে জোর দিতে রাজ্য সরকারের উদ্যোগে শুরু হল টুরিস্ট গাইড সার্টিফিকেট কোর্স

সুমন তালুকদার

পর্যটনের উপর জোর দিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তার পথ অনুসরণ করেই পর্যটন শিল্প ও পর্যটকদের কথা মাথায় রেখেই উত্তর ২৪ পরগনা জেলায় শুরু হয়ে গেল টুরিস্ট গাইড সার্টিফিকেট কোর্স। পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য পর্যটন দপ্তরের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় এবং উৎকর্ষ বাংলা বিভাগের সহযোগিতায় ২৮ জন ছাত্র ছাত্রীদের নিয়ে এই কোর্সের পথচলা শুরু হল।

গত শুক্রবার উত্তর ২৪ পরগনার জেলা সদর  বারাসাতের ‘ওল্ড ডি আর ডি সি বিল্ডিংয়ে প্রদীপ জ্বালিয়ে  কোর্সের শুভ উদ্বোধন করেন অতিরিক্ত জেলাশাসক (উন্নয়ন) ইন্দ্রনীল ভট্টাচার্য। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অফিসার ইনচার্জ পর্যটন  শৈলশিখর সরকার, জেলা পর্যটন উন্নয়ন আধিকারিক মৌসম মাসান্ত সহ অন্যান্য আধিকারিকেরা।

জেলা পর্যটন উন্নয়ন আধিকারিক মৌসম মাসান্ত জানান, দীর্ঘদিনের প্রচেষ্টার পরে জেলায় প্রথমবারের জন্য এই উদ্যোগ শুরু করা সম্ভব হয়েছে। এটা আমাদের কাছে ভীষণ আনন্দের। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য পর্যটন দপ্তরের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় এবং উৎকর্ষ বাংলা বিভাগের সহযোগিতায়  এই কোর্স শুরু হল। ২৪ দিনের এই কোর্সে প্রত্যেক দিন ৮ ঘণ্টা ক্লাস হবে। প্রথম ৪ ঘন্টা টুরিজম ও টুরিস্ট গাইড বিষয়ে পঠন পাঠন এবং পরবর্তী ৪ ঘন্টা হাতে কলমে কাজ শেখানো হবে। আমাদের জেলা তথা রাজ্যে প্রচুর ভ্রমণপিপাসু মানুষ বেড়াতে আসেন কিন্তু উপযুক্ত টুরিস্ট গাইড এর অভাবে তারা ভ্রমণের সম্পূর্ণ স্বাদ আস্বাদন থেকে বঞ্চিত থাকেন। দক্ষ টুরিস্ট গাইড তৈরি হলে এই সমস্যা অনেকটাই কমবে।

অতিরিক্ত জেলা শাসক  ইন্দ্রনীল ভট্টাচার্য বলেন, উত্তর ২৪ পরগনা জেলার টাকি অঞ্চলে সদ্য পাঁচটি হোমস্টের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও বিভিন্ন পর্যটন স্থান থেকে নতুন হোমস্টে রেজিস্ট্রেশনের জন্য আবেদনপত্র চাওয়া হয়েছে। আবেদনপত্র জমা পড়ল রেজিস্ট্রেশন এর কাজ শুরু করা হবে। সেইসঙ্গে জেলার বিভিন্ন প্রত্যন্ত জায়গাকে পর্যটনের মানচিত্রে স্থান দেওয়ার কথা বলেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। ফলে গাইডদের চাহিদা বাড়বে বলেও আশ্বস্ত করে। তিনি আগামীদিনের টুরিস্ট গাইডদের অগ্রিম শুভ কামনা জানিয়েছেন। এই কোর্সের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে অ্যাসেনসিভ এডুকেয়ার নামক একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানকে। কোর্সের প্রশিক্ষিকা মাসুদা খাতুন ছাত্রছাত্রীদের উদ্দেশ্যে জানিয়েছেন এই কোর্স করে কিভাবে একজন সফল টুরিস্ট গাইড হিসাবে নিজের কর্মজীবন শুরু করা যায়। কোর্সের মাধ্যমে ছাত্র-ছাত্রীদের শেখানো হবে একজন দক্ষ টুরিস্ট গাইড হতে গেলে কি কি গুনাগুন প্রয়োজন হয়, কিভাবে পর্যটকদের সঙ্গে কথোপকথন করবেন, কিভাবে পর্যটক এর সমস্যাগুলো বুঝে নিয়ে দ্রুত নিষ্পত্তি করা যায় ইত্যাদি। তিনি বলেন, এই কোর্স করে ছাত্রছাত্রীরা রাজ্য তথা জেলার বিভিন্ন প্রান্তে নিজেদের টুরিস্ট গাইড হিসাবে আত্মপ্রকাশ করে নিজেদের কর্মজীবন শুরু করতে পারবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three × two =