কেন্দ্রের ক্যাগ রিপোর্ট নিয়ে রাজ্যের ভূমিকা স্পষ্ট করলেন মুখ্যসচিব

কম্পট্রোলার অ্যান্ড অডিটর জেনারেল ক্যাগ -এর রিপোর্টে তোলা অভিযোগ খারিজ করে দিল রাজ্য। রাজ্যের বিরুদ্ধে  বিভিন্ন কেন্দ্রীয় প্রকল্পের বরাদ্দ খরচের সংশাপত্র বা ইউটিলাইজেশন সার্টিফিকেট জমা না করার অভিযোগ উঠেছে ওই রিপোর্টে। শুক্রবার নবান্নে এক সাংবাদিক বৈঠকে মুখ্যসচিব ভগবতী প্রসাদ গোপালিকা এবং অর্থসচিব মনোজ পন্থ যৌথ সাংবাদিক বৈঠক করে বলেন সিএজি রিপোর্টে বহু অসঙ্গতি রয়েছে। রাজ্য সরকার এই রিপোর্ট মানছে না।

মুখ্যসচিব বলেন, সিএসজি রিপোর্টের প্রেক্ষিতে বিভিন্ন দপ্তরের অধীনে চলা কেন্দ্রীয় প্রকল্পগুলি পর্যালোচনা করা হয়েছে। তাতে দেখা গিয়েছে সমস্ত প্রকল্পের ব্যবহারিক সংশাপত্র নিয়ম মত দিল্লিতে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রকের কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। তার ভিত্তিতে পরবর্তী কিস্তির টাকাও বরাদ্দ করেছে কেন্দ্র। কোনও প্রকল্পের ইউটিলাইজেশন সার্টিফিকেট বকেয়া নেই। একই সঙ্গে ২০০২-০৩ সাল থেকে যে সময়সীমার কথা ক্যাগ রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে তা নিয়েও মুখ্যসচিব বিস্ময় প্রকাশ করেন। তিনি জানান,  অন্যদিকে পঞ্চায়েত-সহ বিভিন্ন প্রকল্পের অগ্রগতি খতিয়ে দেখতে কেন্দ্রীয় সরকার গত প্রায় দু-বছরে ৩৩৪ টি পরিদর্শক দলকে রাজ্যে পাঠিয়েছে। তাঁরা যে সমস্ত ব্যাখ্যা তলব করেছিলেন তার জবাবও দিল্লিতে যথাসময়ে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে মুখ্যসচিব জানান।

শুক্রবার নবান্নে সিএজি রিপোর্ট নিয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন মুখ্যসচিব বিপি গোপালিকা। কেন্দ্রের পাঠানো সিএজি রিপোর্টে ২০২১ সালে ২ লক্ষ ২৯ হাজার কোটি টাকার ইউসি (ইউটিলাইজেশন সার্টিফিকেট) দেওয়া হয়নি বলে দাবি করা হয়েছে। মুখ্যসচিব জানান, এটা ভুল রিপোর্ট। সরকার এটা মানছে না। তিনি আরও জানান, ‘আটটা দপ্তর নিয়ে আলাদা করে বলা হয়েছে যে এদের ইউটিলাইজেশন সার্টিফিকেট বাকি আছে। আমরা আটটা দপ্তরকেই বিষয়টি খতিয়ে দেখতে বলি। শুধু ২০২২ নয়, ২০২১-২০২২ পর্যন্ত সব ইউসি জমা দেওয়া হয়েছে।’

এ বিষয়ে মুখ্যসচিব আরও ব্যাখ্যা করে বলেন, ‘যখনই কোনও দপ্তর কেন্দ্র থেকে টাকা পায়, তখন সেই টাকা পাওয়ার আগে ইউসি জমা দিতে হয়। জমা না দিলে টাকা পাওয়া যায় না। এই রিপোর্টে প্রায় ২০ বছরের একটা হিসাব দেওয়া হচ্ছে। এতগুলো বছর ধরে যদি ইউসি না দেওয়া হয়ে থাকে, তাহলে এতদিন পরে কেন এটা বলা হল না? এটি ভ্রান্ত রিপোর্ট। আমাদের অ্যাকাউন্ট্যান্ট জেনারেলের কাছ থেকে এটা তো জেনে নেওয়া যেত।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

16 − seven =