হঠাৎ কারখানা বন্ধের নোটিশে চাঞ্চল্য ঝাঁঝরায়

সোমনাথ মুখোপাধ্যায়, লাউদোহা

দুর্গাপুর-ফরিদপুর ব্লকের ঝাঁঝরা এলাকায় রয়েছে বেশ কয়েকটি বেসরকারি আয়রণ কারখানা। এদের মধ্যে একটি কারখানায় রবিবার সন্ধ্যায় বকেয়া বেতনের দাবিতে কারখানার ঠিকা শ্রমিকরা কারখানার গেট বন্ধ করে বিক্ষোভ দেখায়। শ্রমিকদের দাবি কারখানায় ঠিকাদার আসে যায়। বারবার বদল হয় ঠিকাদার আর এর ফলেই তাদের পারিশ্রমিক বকেয়া থেকে যায়। ঠিকা শ্রমিকদের অভিযোগ, তারা দীর্ঘ দু-তিন মাস কাজ করেও তাঁদের ন্যায্য বকেয়া পাননি। তাই বাধ্য হয়ে তাঁরা বিক্ষোভের পথে হাঁটেন। তাঁদের দাবি, অবিলম্বে তাঁদের বকেয়া বেতন মিটিয়ে দিতে হবে নইলে কাজে যাবেন না তারা, বন্ধ থাকবে কারখানার গেট। এই রকম একটা পরিস্থিতিতে কারখানা কর্তৃপক্ষ ঠিকাদারদের ডেকে শ্রমিকদের বকেয়া বেতন মিটিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দেন।

কিন্তু কারখানার শ্রমিকদের অভিযোগ, কারখানা কর্তৃপক্ষ শ্রমিকদের জন্য কোনোরকম সুরক্ষা ব্যবস্থা রাখেনি, নেই কোনো শৌচালয়। এমনকি শ্রম আইন অনুযায়ী শ্রমিকদের আট ঘণ্টার বদলে বারো ঘণ্টা কঠোর পরিশ্রম করানো হয়। যার জন্য মেলে না কোনো অতিরিক্ত পারিশ্রমিক। অতিরিক্ত পারিশ্রমিক দূরআস্ত, মেলে না তাদের ন্যায্য পারিশ্রমিকও এমনটাই অভিযোগ কারখানার ঠিকা শ্রমিকদের। কারখানা কর্তৃপক্ষ রাজেশ কুমার শুক্লা জানান, তাঁরা ঠিকাদারদের বিল যথাসময়ে মিটিয়ে দিয়েছে। তাও ঠিকাদাররা কেন তাদের শ্রমিকদের বেতন দেয়নি, তা আলোচনা করা হবে। তবে যতদিন পর্যন্ত ঠিকাদার এবং শ্রমিকদের এই ব্যাপারটি মিটছে না ততদিন কারখানা বন্ধ থাকবে।

যদিও এই ব্যাপারে ঠিকাদারদের তরফ থেকে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। কারখানার শ্রমিক ও কারখানা কর্তৃপক্ষের এই সমস্যার মধ্যেই হঠাৎ করে রবিবার রাতে কারখানার গেটের সামনে অনির্দিষ্টকালের জন্য কারখানা বন্ধের নোটিশ ঝুলিয়ে দেয় কর্তৃপক্ষ। সোমবার সকালে কারখানার বেশকিছু শ্রমিক নিজেদের কাজে যোগদান করতে এলে তাদের ঘুরিয়ে দেওয়া হয়। তাদের বলা হয় কারখানা অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করা হয়েছে। এই অবস্থায় চরম সংকটে কারখানার স্থায়ী শ্রমিকরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

14 + 17 =