নয়াগ্রাম সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে বিরল অপারেশনে সাফল্য

নিজস্ব প্রতিবেদন, ঝাড়গ্রাম: জঙ্গলমহলের জেলা ঝাড়গ্রাম, জেলার এক প্রান্তে নয়াগ্রাম সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে হল জটিল অপারেশন। দীর্ঘদিন পর এই রকম সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে এই ধরনের অপারেশন শুরু হওয়ার পর সুস্থ হয়ে উঠলেন ষাট বছরের এক বৃদ্ধ।
গত পাঁচ বছর ধরে মুখের সামনে টিউমার নিয়ে অসুস্থতায় ভুগছিলেন সুধীর মান্ডি। বৃহস্পতিবার রাতে নয়াগ্রাম সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে তাঁর মুখের সামনে থাকা ৪০০ গ্রাম ওজনের টিউমারটি কেটে বাদ দেন চিকিৎসকেরা। হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, সুধীর মান্ডির বাড়ি নয়াগ্রাম ব্লকের ধীরিঘুটু গ্রামে। গত পাঁচ বছর ধরে মুখের টিউমার নিয়ে ভুগছিলেন।
জানা গিয়েছে, এক সপ্তাহ আগে নয়াগ্রাম সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের সুপার দেবাশিস মাহাত একটি স্বাস্থ্য শিবিরে গিয়ে মুখে টিউমার নিয়ে ঘুরতে দেখেন। এরপর ওই বৃদ্ধকে নয়াগ্রাম সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে নিয়ে এসে চিকিৎসা করানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু তিনি ভয়ে আসতে চাননি। পরে একটি এনজিওর মাধ্যমে ওই বৃদ্ধকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হলে বৃহস্পতিবার রাতে তা¥র মুখে অপারেশন করে টিউমারটি কেটে বাদ দেওয়া হয়।
জানা গিয়েছে, প্রায় এক ঘণ্টা ধরে এই অস্ত্রোপচার করেন ডেন্টাল সার্জেন শান্তুনু বাতসা ও ইএনটি সার্জেন কাঞ্চন পাঠক। ঝাড়গ্রাম বা মেদিনীপুর শহরে অপারেশনের জন্য যেতে হবে না আর, জঙ্গলমহলের মানুষের কাছে চিকিৎসা করানোর জন্য নয়াগ্রাম সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালই যথেষ্ট। মুখ্যমন্ত্রীর স্বপ্নের এই সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে বিরল অপারেশন হওয়ায় খুশি জঙ্গলমহলবাসী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *