বারুইপুরের পেয়ারা ও লিচুর জন্য কেন্দ্রের কাছে জিআই ট্যাগের দরবার

রসগোল্লা কার? বাংলার না ওডিশার। তা নিয়ে টানাটানিতে শেষ পর্যন্ত জয়ী হয়েছে বাংলা। কলকাতার রসগোল্লা, দার্জিলিং চা থেকে শুরু করে মালদহের ক্ষীরসাপতি বা হিমসাগর আম, বর্ধমানের মিহিদানা-সীতাভোগ, জয়নগরের মোয়ার মতো রাজ্যের অনেক কিছুই ইতিমধ্যে জিআই ট্যাগ পেয়েছে।

এবার বারুইপুরের সুস্বাদু পেয়ারা ও মিষ্টি লিচুর জন্য ‘জিওগ্রাফিক্যাল আইডেন্টিফিকেশন’ ট্যাগ পেতে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে আবেদন জানাল নবান্ন। সম্প্রতি বিধানসভায় এ কথা জানিয়েছেন রাজ্যের বিজ্ঞান, প্রযুক্তি ও জৈব প্রযুক্তি দফতরের স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত রাষ্ট্রমন্ত্রী উজ্জ্বল বিশ্বাস।বারুইপুর পূর্বের তৃণমূল বিধায়ক বিভাস সরদারের একটি প্রশ্নের উত্তরে এ কথা জানিয়েছেন উজ্জ্বলবাবু। তবে শুধু পেয়ারা বা লিচু নয়, সেখানকার জামরুল এবং দক্ষিণ ২৪ পরগনার অন্যতম বড় কুটিরশিল্প সবুজ আতশবাজিতেও ‘জিআই’ তকমা পাওয়ার জন্য আবেদন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

এ নিয়ে আলাপ-আলোচনার সময় রসিকতা করে বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, শুধু আবেদনে কাজ হবে না। জিআই ট্যাগ নিয়ে আসতে হবে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *