দুষ্কৃতীদের গুলিতে ঝাঁঝরা করনি সেনা প্রেসিডেন্ট সুখদেব সিং

শ্রী রাষ্ট্রীয় রাজপুত করনি সেনা প্রেসিডেন্ট সুখদেব সিং গোগামেদিকে গুলি করে হত্যা করা হল। ক্ষমতার পালাবদলের পরেই খুনোখুনি শুরু রাজস্থানের রাজধানী জয়পুরে।  রাজপুত করণী সেনার নরমপন্থী গোষ্ঠীর নেতা হিসাবে পরিচিত ছিলেন তিনি। জয়পুর পুলিশ জানিয়েছে, মঙ্গলবার শ্যামনগর এলাকায় সুখদেবের বাড়িতে ঢুকে তাঁকে গুলিতে ঝাঁঝরা করে কয়েক জন সশস্ত্র দুষ্কৃতী। ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ। সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে হত্যাকাণ্ডের হাড়হিম করা সিসিটিভি ফুটেজ। আততায়ীদের খোঁজে চলছে তল্লাশি।

পুলিশ জানিয়েছে,  দুপুর ১টা বেজে ৪৫ মিনিট নাগাদ নিজের বাড়ির কাছে এক পরিচিতের বাড়িতে ছিলেন সুখদেব। তখনই চার জন দুষ্কৃতী স্কুটারে চেপে হাজির হয় ঘটনাস্থলে। সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গিয়েছে, ঘরের ভিতর ঢুকে করনি সেনা প্রেসিডেন্টকে লক্ষ্য করে একের পর এক গুলি চালানো হচ্ছে। পাশাপাশি সঙ্গী অজিত সিং এবং নিরাপত্তারক্ষীর উপরেও গুলি চালানো হয়। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় সুখদেবকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় সুখদেবকে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয়েছে তাঁর। অজিত সিং এবং নিরাপত্তারক্ষীর চিকিৎসা চলছে হাসপাতালে। দুজনের অবস্থাই আশঙ্কাজনক।

২০১৮ সালে পরিচালক সঞ্জয় লীলা ভনসালির ছবি ‘পদ্মাবতের’ বিরুদ্ধে হিংসাত্মক আন্দোলন করে শিরোনামে এসেছিল কট্টরপন্থী রাজপুত নেতা লোকেন্দ্র সিং কালভি প্রতিষ্ঠিত ‘শ্রী রাজপুত করণী সেনা’। এমনকী, শুটিংয়ের সময় করনি সেনার সমর্থকদের হাতে আক্রান্তও হয়েছিলেন ভনসালি। সে সময় লোকেন্দ্রর ওই হিংসাত্মক প্রতিবাদ করেছিলেন নরমপন্থী রাজপুত নেতা সুখদেব এবং যোগেন্দ্র সিং কাতার। নতুন সংগঠন ‘শ্রী রাষ্ট্রীয় রাজপুত করনি সেনা’ গড়েছিলেন তাঁরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *