উৎসবের মরশুমে শেয়ার বাজারে বিনিয়োগ করুন, পকেটে আসবে অনেক অতিরিক্ত অর্থ।

বাঙালির বারোমাসে তেরো পার্বন। দুর্গাপূজা থেকে শুরু করে কালীপুজা সারা পৃথিবীতে বাঙালিদের কাছে অতি আবেগের। আর এই উৎসব প্রিয় হুজুকে বাঙালির কাছে উৎসব মানেই অতিরিক্ত খরচও বটে। আবার এই উৎসব এর সময়টি আমাদের কাছে অনেক বড়ো সুযোগ থাকে অতিরিক্ত আয় করার। শেয়ার বাজারে বিনিয়োগের মাধ্যমে ‘ভ্যালু ইনভেস্টিং’ এর জন্য যথেষ্টই সঠিক সময় বলেই মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।

এই উৎসবের আগমনে গ্রাহকের ব্যায়ের ইচ্ছা বছরে সাধারণ সময়ের তুলনায় অনেক বেশি বৃদ্ধি পায়। সেকারণে এই সময়ে বাণিজ্যক কার্যকলাপ অনেক বেশি বৃদ্ধি পায় বেশ কিছু সেক্টর যেমন ভোগপণ্য, খুচরো এবং হসপিটালিটিতে। তাই বিনিয়োগ কারীদের জন্য বড় সুযোগ উৎসবের সাথে যুক্ত কিছু কোম্পানি তে বিনিয়োগ করা এবং লাভ তোলা।

শেয়ার বিষয়ে এনআইএসএম সার্টিফাইড এনালাইস্ট এবং স্কুল অফ ডে টেডার্সের মুখ্য গবেষক ভোলানাথ দাস বলেন, ‘কিছু কোম্পানি প্রত্যক্ষ ও পরক্ষভাবে এই উৎসবের সাথে যুক্ত থাকে। যেমন কিছু কোম্পানি যাঁরা মূর্তি, আলংকারিক আইটেম, পোশাক, এবং খাদ্য পণ্য
উৎপাদন করছে, এই সকল কোম্পানির শেয়ারগুলো তে অনেক বেশি ডিমান্ড তৈরী হয়। এছাড়া গাড়ি উৎপাদন কোম্পানিগুলোর এই সময় বিশেষ বিক্রি বাড়ে। স্বাভাবিক ভাবে এই সকল কোম্পানির শেয়ারগুলো উৎসবের দিন গুলোতে ভালো পারফর্ম করার সম্ভবনা বেড়ে যায়।

গত বছর উৎসবের দিন গুলোতে ভালো রিটার্ন দিয়ে দিয়েছে টাইটান, হিন্দুন্তান ইউনিলভার, মারুতি সুজুকি,
বাজাজ ফিনান্স, এশিয়ান পেইন্টস, রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ
এবং টাটা মোটরস -এর মত সংস্থা। শেয়ার বাজারে কিছু কিছু ক্ষেত্র অল্প সময়ের জন্য খুব ভালো কার্যকারিতা দেখায়। যেহেতু বাজারে সারা বছর ভোলাটিলিটি থাকে, তাই উৎসবের সময় গুলোকে যদি ঠিক ঠাক কাজে লাগানো যায় তাহলে আমরা অল্প সময়ে বিনিয়োগ করে ভালো কিছু মুনাফা পেতে পারি। মার্কেট ঠিক ঠাক রিসার্চ যদি করতে পারি, আমাদের চোখের সামনে অনেক বড়ো সুযোগ খুলে যেতে পারে। তাই উৎসবের সময় গুলো বাঙালিদের সর্বদা বিনিয়োগের কথা ও মাথায় রাখা উচিত।
উৎসবের দিন গুলোতে বেশ কিছু শেয়ারে দাম বাড়ে এবং উৎসব শেষ হলে শেয়ারের দামে কিছুটা পরিবর্তন আসে। তাই এই সময়টা অবাঙালিরা সর্বদা নিয়ম করেই শেয়ার বাজারে বিনিয়োগ করেন। দীপাবলি উৎসবের সময়ে এবছরও ১২ই নভেম্বর এই মুহারত ট্রেডিং এর দিন নির্ধারিত হয়েছে। ওই দিন গুজরাটের বহু ব্যবসায়ী ঈশ্বরের নাম নিয়ে নতুন শেয়ারে বিনিয়োগ করেন এবং সবাই বিশ্বাস করেন যে এই মুহারত এর দিন শেয়ার বাজারে বিনিয়োগ করলে বিনিয়োগ অনেক বেশি মুনাফা তুলে দিতে পারে।
দুর্গাপুজো থেকে কালীপুজা, দীপাবলির সময়ও বিনিয়োগ খুবই লাভজনক হতে পারে কিন্তু তার জন্য সঠিক বিশ্লেষণ ও গবেষণা করা খুবই প্রয়োজন। শেয়ার বাজারে বিনিয়োগের জন্য কিছুটা মার্কেট সংক্রান্ত পড়াশুনা থাকা প্রয়োজন না হলে রিস্ক ফ্যাক্টর থেকেই যাবে অনেক বেশি। পূজোর উৎসবে আর্থিক নিরাপত্তা খুবই প্রয়োজন এবং সঠিক বিনিয়োগ (ভ্যালু ইনভেস্টিং) আমাদের আর্থিক নিরাপত্তা ও স্বাধীনতা দিতে সক্ষম। বর্তমান সময়ে বেকারত্বের জায়গা থেকে কিছুটা বাঁচাতে পারে যদি সঠিক বিনিয়োগ আমরা করতে পারি। আর উৎসবের সময় পকেটে আসতে পারে বেশ কিছু অতিরিক্ত রেস্তো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 × four =