স্কুল লাগোয়া জগদ্দলের তিনসুটিয়া মাঠের ধার থেকে তাজা বোমা উদ্ধার

সামনেই লোকসভা নির্বাচন। লোকসভা নির্বাচনের মুখে স্কুল লাগোয়া জগদ্দল থানার ভাটপাড়া পুরসভার ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের গুপ্তারবাগান তিনসুটিয়া মাঠের ধারে আগাছা আবর্জনার স্তুপ থেকে সাতটি বোমা উদ্ধার করল পুলিশ। মঙ্গলবার সকালে ঘটনাস্থলে সিআইডি-র বম্ব স্কোয়াড এসে বোমাগুলো নিষ্ক্রিয় করে। যদিও মাঠের পাশেই রয়েছে ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের এসিপি অফিস, কমলা বালিকা প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ললিতা দেবী উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়। আর বোমা উদ্ধারস্থলের ঢিল ছোড়া দূরত্বে রয়েছে স্থানীয় কাউন্সিলরের বাড়ি। তবে এতগুলো বোমা উদ্ধারে আতঙ্কিত স্কুল কর্তৃপক্ষ। দুষ্কৃতী দৌরাত্ম্য রুখতে প্রশাসনকে কড়া নজরদারি চালানোর দাবি করলেন স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা এলা দত্ত কর। প্রধান শিক্ষিকা বলেন, ‘মাঠ লাগোয়া পরিবেশ এখন আতঙ্কের পরিবেশ।’ প্রশাসনের কাছে তাঁর দাবি, সুস্থ পরিবেশ গড়ে তোলা হোক। প্রধান শিক্ষিকার অভিযোগ, ‘১০-১২ বছর আগেও একবার বোমা বিস্ফোরণে একটা ছেলের হাত উড়ে গিয়েছিল। কিন্তু বাচ্চাদের নিয়ে সবসময় আতঙ্কে থাকি। বাচ্চাদের মাঠে যেতে নিষেধ করি।’ তাঁর দাবি, প্রশাসন কঠোর পদক্ষেপ নিয়ে আতঙ্কের পরিবেশ বদলে দিক। অন্য দিকে, স্থানীয় কাউন্সিলর মনোজ পান্ডে বলেন, ‘শুনেছি মাঠের ধারে পুলিশ সাত-আটটা বোমা ছিল। বম্ব স্কোয়াড এসে বোমাগুলো নিষ্ক্রিয় করে দেয়। মনোজের দাবি, সামনেই লোকসভা নির্বাচন। তাই শান্ত পরিবেশ অশান্ত করার চক্রান্ত করছে বিজেপি আশ্রিত দুÜৃñতীরা।’ বোমা উদ্ধার নিয়ে ভাটপাড়ার বিধায়ক পবন কুমার সিং বলেন, ‘ভাটপাড়ায় এখন বোমার কালচার চলছে। লোকসভা ভোট যতই এগিয়ে আসবে, ততই ভাটপাড়ায় বোমা ফাটবে কিংবা বোমা উদ্ধারের ঘটনা ঘটবে। তাই নির্বাচন ঘোষণার পর তিনি নির্বাচন কমিশনের দাবি রাখবেন, তাঁর বিধানসভা কেন্দ্রে কড়া নজরদারির বন্দোবস্ত করতে।’ শাসকদলের অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে পবনের পাল্টা দাবি, শাসকদলের লোকজন ওখানে বোমা লুকিয়ে রেখেছিল। বিজেপির বদনাম করতে ওরা মিথ্যা প্রচার চালাচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *