ভোটে জেতা হল না সভেরা প্রকাশের, ঝুলিতে মোট ১৭০০ ভোট

ইতিহাস গড়া হল না পাকিস্তানের প্রথম হিন্দু মহিলা প্রার্থীর। লড়াই করেও নির্বাচনে পরাজিত হলেন ২৫ বছর বয়সি চিকিৎসক সভেরা প্রকাশ। তাঁর ঝুলিতে এসেছে মোটে ১৭০০ ভোট। তার পরেও হতদ্যম নন সভেরা। বরং লড়াই করার সুযোগ দেওয়ায় পাকিস্তান পিপলস পার্টিকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তরুণী সভেরা প্রকাশ।

এক্স হ্যান্ডেলে পাকিস্তানের প্রথম হিন্দু মহিলা প্রার্থী জানিয়েছেন, ভোটে লড়াই করার অভিজ্ঞতা অসাধারণ। দলের চেয়ারম্যান বিলাওয়াল ভুট্টো, সমর্থকদের পাশাপাশি আরও যারা আমাদের উপর বিশ্বাস রেখেছেন তাঁদের ধন্যবাদ। সভেরার আরও সংযোজন, যদিও ভোটের ফলাফল আশানুরূপ হয়নি। তবে অতীত থেকে শিক্ষা নিয়ে আমরা একসঙ্গে আরও শক্তিশালী হয়ে ভবিষ্যতের দিকে এগিয়ে যাব।

খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশের বুনের জেলার পিকে-২৫ কেন্দ্র থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন সভেরা। পাকিস্তানের ইতিহাসে এই প্রথম কোনও হিন্দু মহিলা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করলেন। তাঁর বাবা ওম প্রকাশ সরকারি চিকিৎসক ছিলেন। তিনি ছাত্রজীবন থেকে পিপিপি’র সদস্য। বাবার দেখাদেখি মেয়েও চিকিৎসার পাশাপাশি রাজনীতিতে আগ্রহী হন। সভেরা পাকিস্তানে নারীর অধিকার আন্দোলনেও এক পরিচিত মুখ। পিপিপি নেতৃত্ব দলের সঙ্গে সভেরার পরিবারের দীর্ঘ সম্পর্ক এবং নারী আন্দোলনের সুবাদে পরিচিত মুখ হওয়ায় ওই তরুণীকে টিকিট দিয়েছিল। তিনি পিপিপি’র বুনের জেলার মহিলা উইংয়ের সাধারণ সম্পাদকও। তবে লড়াই করলেও ভোটে জেতা হল না সভেরা প্রকাশের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *