এবছরে টেনিস ভাষ্যকার হিসেবে ফিরছেন সানিয়া

বছরের শুরুতেই কি এটাকে দারুণ খবর বলা যেতে পারে? প্রত্যাবর্তন যখন, তখন গুরুত্ব দিতেই হবে। অবসর ভেঙে আবার কোর্টে ফিরছেন সানিয়া মির্জা! গত বছরই টেনিসকে বিদায় জানিয়েছিলেন ভারতীয় টেনিস সুন্দরী। ২০২৩ সালে রোহন বোপান্নাকে সঙ্গী করে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের মিক্সড ডাবলসের ফাইনালে উঠেছিলেন। কিন্তু খেতাব জিততে পারেননি। এক বছর পর আবার অস্ট্রেলিয়ান ওপেনেই দেখা যাবে সানিয়াকে। আর্থার অ্যাশ এরিনায় সানিয়াকে দেখার জন্য মুখিয়ে রয়েছে ভারতীয় টেনিস ভক্তরা।

না প্লেয়ার হিসেবে নয়, সানিয়ার টেনিস প্রত্যাবর্তন হচ্ছে অন্য ভূমিকায়। মেয়েদের টেনিসে অত্যন্ত পরিচিত নাম সানিয়াকে দেখা যাবে কমেন্ট্রি বক্সে। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে টেনিস নিয়ে কাটাছেঁড়া করবেন। তাঁর প্রভূত অভিজ্ঞতা শেয়ার করবেন টিভি দর্শকদের সঙ্গে। সানিয়া বলেওছেন, ‘খেলাটা বরাবর আমার প্রাণ। কমেন্ট্রি আমাকে টেনিসের সঙ্গে জুড়ে থাকতে সাহায্য করবে।’ কমেন্ট্রি অবশ্য নতুন নয় সানিয়ার কাছে। গত বছর উইম্বলডনের সময়ও ধারাভাষ্যকারের ভূমিকায় দেখা গিয়েছে তাঁকে।

বাবা ইমরান মির্জাও মেয়ের কমেন্ট্রি নিয়ে উচ্ছ্বসিত। সানিয়াকে নিয়ে বলেছেন, ‘ও কমেন্ট্রি করা পছন্দ করে। ও যেমন খেলাটা ভালো বোঝে, তেমনই মেয়েদের টেনিসে প্রায় সবাইকে চেনে। মিক্সড ডাবলস খেলার দরুণ ছেলেদেরও বেশ কয়েক জনকে ভালো মতো চেনে। অনেক অজানা গল্প দর্শকদের জন্য তুলে ধরতে পারবে সানিয়া।’

টেনিস কেরিয়ার যথেষ্ট ঝলমলে ছিল সানিয়ার। সিঙ্গলসে তেমন সাফল্য পাননি। তবে ডাবলস ও মিক্সড ডাবলসে যথেষ্ট সাফল্য পেয়েছেন। সব মিলিয়ে ৬টা গ্র্যান্ড স্লাম জিতেছেন কেরিয়ারে। ধারাভাষ্যকার হিসেবে টেনিসে ফিরলেও সানিয়া কি আবার অবসর ভেঙে প্লেয়ার হিসেবে কোর্টে ফিরবেন কোনও দিন? অনেক নামী প্লেয়ারই কিন্তু কোর্টে ফিরেছেন নতুন করে। সানিয়ার ক্ষেত্রে তেমন দেখা গেলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *