কুক স্ট্রেইট চ্যানেলে নামার লক্ষ্যে রওনা সাঁতারু সায়নীর

নিজস্ব প্রতিবেদন, কালনা: ইংলিশ চ্যানেল, ক্যাটলিনা ও মার্কিন মুলুকের মলোকাই চ্যানেল জয় করে বিদেশের মাটিতে ভারতের তেরঙ্গা পতাকা ওড়ানোর পর এবার সপ্তসিন্ধুর আর একটি সিন্ধু নিউজিল্যান্ডের কুক স্ট্রেইট চ্যানেলে নামার লক্ষ্যে কালনার বারুই পাড়ার নিজের বাড়ি থেকে শুক্রবার রওনা দিলেন জলপরী তথা সাঁতারু সায়নী দাস। কলকাতা থেকে আকাশপথে বিদেশে পাড়ি দেবেন সায়নী। সফল হয়েই ফিরবেন সায়নী, তাণর কঠিন পরিশ্রমের ওপর ভরসা করেন তাঁর পরিবার ও কালনাবাসী।
সূর্যের আলো ফুটতে না ফুটতেই ভাগীরথী নদে বেশ কয়েকঘণ্টা ধরে সাঁতার কাটার অভ্যাস করতেন কালনার সাঁতারু সায়নী দাস। গত বছর রটনেস্ট চ্যানেলও জয় করেন তিনি। রাতের অন্ধকারে বরফের মতো কনকনে ঠান্ডা জল, ভয়াল ভয়ংকর স্রোত ও হাঙরের মতো বিভিন্ন জীবজন্তুর মরণফাঁদকে অতিক্রম করে এখনও পর্যন্ত সপ্তসিন্ধুর তিন সিন্ধুর জয় তাঁর ঝুলিতে। শুধু তাই নয়, অসংখ্য সম্মানও পেয়েছেন সায়নী, আরও এক সিন্ধু জয়ের লক্ষ্যে আগামী ৩১ মার্চ থেকে ৫ এপ্রিলের মধ্যে নিউজিল্যাণ্ডের কুক স্ট্রেইট চ্যানেলে নামছেন তিনি। এই লক্ষ্যে কালনার গঙ্গায় ধারাবাহিক ভাবে ৫-৬ ঘণ্টা ধরে একনাগাড়ে অনুশীলন চালান। শুক্রবার তিনি তা¥র বাবা রাধেশ্যাম দাস ও মা রুপালি দাসকে সঙ্গে নিয়ে কলকাতা রওনা দেন।
সায়নী বলেন, ‘কুক স্ট্রেইট সপ্তসিন্ধুর চতুর্থ সিন্ধু। ভয়ংকর একটি চ্যানেল। আবহাওয়া কখন কেমন থাকবে সে ভাবে বোঝা খুব মুশকিল। এখনই বলে দিচ্ছে তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রির নীচে থাকবে। গরমের দেশে থেকে ওই ঠান্ডা জলে ঘণ্টার পর ঘণ্টা সাঁতার কাটাটাও একটা চ্যালেঞ্জ। জলে নামার অপেক্ষায় রয়েছি।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *