মেসি-ধ্বনিতে প্রবল ক্ষুব্ধ রোনাল্ডো

এখানে তো আমি আছি! রাজত্বে অন্য কারও ভাগ বসল কি? পরিস্থিতি যেন তেমনই। সৌদি আরবে খেলা। রোনাল্ডোর রাজত্বে হঠাৎই মেসি ধ্বনি। যা শুনে প্রবল ক্ষুব্ধ ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। সৌদি আরবের দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্লাবের লড়াইয়ে ঢুকে পড়লেন লিও মেসি! প্রীতি ম্যাচেও তৈরি হল অস্বস্তি। রোনাল্ডোর সামনে মেসি ধ্বনি নতুন নয়। তবে এমন পরিস্থিতি তৈরি হবে, তা হয়তো কেউ ভাবেননি।

রিয়াধ সিজন কাপে মুখোমুখি হয় আল হিলাল ও আল নাসের। দুই ক্লাবের ম্যাচে প্রতিদ্বন্দ্বিতা থাকবে, সেটাই প্রত্যাশিত। বল পজেশনে অনেকটাই এগিয়ে ছিল ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর আল নাসের। রোনাল্ডোর মতো প্লেয়ার থাকলে সেই দল অ্যাডভান্টেজ এটাই যেন স্বাভাবিক। তবে টিম গেমে সবসময় ব্যক্তিগত নৈপুণ্য কাজে আসে না। সের্গেজ মিলিনকোভিচ ও সালেম আলদাওয়াসারির গোলে ২-০ ব্যবধানে জেতে আল হিলাল। হারের চেয়েও বড় অস্বস্তি রোনাল্ডোর কাছে অন্য।

আল হিলাল সমর্থকরা প্রতিপক্ষ ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোকে রাগাতে মেসির নামে ধ্বনি দিতে থাকেন। রোনাল্ডোও প্রচণ্ড ক্ষোভে ইঙ্গিত করেন, এখানে আমি আছি, মেসি নেই। তাতে অবশ্য আল হিলাল সমর্থকদের খুব বেশি পরিবর্তন হয়নি। কাতার বিশ্বকাপের পরই সৌদি আরবের ক্লাব আল নাসেরে সই করেন পর্তুগাল তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। সে সময় লিও মেসিকে নিয়েও প্রবল জল্পনা ছিল। আর্জেন্টিনার বিশ্বজয়ী অধিনায়ক লিও মেসিকে বিশাল অঙ্কের প্রস্তাব দিয়েছিল আল হিলাল।

সৌদি লিগে মেসি বনাম রোনাল্ডো দেখার প্রবল সম্ভাবনা থাকলেও শেষ অবধি মেজর লিগ সকারের ক্লাব ইন্টার মায়ামিতে সই করেন মেসি। তবে আল হিলাল সমর্থকরা যেন মেসিকে নিজেদের টিমের প্লেয়ার বলেই মনে করেন!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 × 2 =