গাজায় হামাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ চলার হুঁশিয়ারি নেতানিয়াহুর

তেলআভিভ, ১ জানুয়ারি: নতুন বছরে হিংসা, যুদ্ধ আর হানাহানি বন্ধের প্রার্থনা দিয়েই যেখানে ২০২৪কে স্বাগত জানিয়েছে গোটা বিশ্ব, সেখানে বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর হুঙ্কার, এখনও বহুদিন ধরে গাজায় হামাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ চলবে। এমনকি ইরানের ওপর সরাসরি হামলার হুঁশিয়ারিও দিলেন নেতানিয়াহু। উল্লেখ্য, অক্টোবর মাস থেকে এখনও অব্যাহত হামাস-ইজরায়েল যুদ্ধ। ইতিমধ্যেই সেখানে মৃতের সংখ্যা ২০ হাজার ছাড়িয়ে গিয়েছে।
বছরের শেষদিন সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েছিলেন ইজরায়েলের প্রধানমন্ত্রী। সেখানে তিনি স্পষ্ট জানান, গাজার দক্ষিণে মিশরের সঙ্গে সীমান্ত এলাকাটি ইজরায়েলের নিয়ন্ত্রণে থাকা দরকার। সত্ত্বর এই অঞ্চলে যাতায়াত বন্ধ করে না দিলে গাজায় সন্ত্রাসের বাড়বাড়ন্ত থামানো মুশকিল। ইজরায়েল গাজাকে সন্ত্রাসমুক্ত করতে বদ্ধপরিকর। প্রসঙ্গত, ইজরায়েলের তরফে একাধিকবার বলা হয়েছে, গাজা থেকে হামাসকে একেবারে সরিয়ে ফেলতে পারলেই সুরক্ষিত হবে গোটা দেশ।
আগামী কিছুদিনের মধ্যে যুদ্ধ থামার কোনও ইঙ্গিত তো মেলেইনি ইজরায়েলের প্রধানমন্ত্রীর কথায়। বরং নতুন উদ্যমে যুদ্ধ চালিয়ে যেতে চান নেতানিয়াহু। সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘পুরোদমে যুদ্ধ চলছে। সবরকম ভাবেই যুদ্ধ করে চলেছে সেনাবাহিনী। তবে জয় পেতে এখনও খানিকটা দেরি আছে। আমাদের সেনাপ্রধানও বলেছেন, আরও অনেক মাস যুদ্ধ চলবে।’ তাঁর কথাতেই যুদ্ধের চালিয়ে যাওয়ার সুর।
পাশাপাশি ইরানকেও সরাসরি হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ইজরায়েলি প্রধানমন্ত্রী। হামাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে লেবানন সীমান্ত থেকেও ইজরায়েলের বিরুদ্ধে হামলা চালানো হয়েছে। তার প্রেক্ষিতেই হুঁশিয়ারি দিয়ে নেতানিয়াহু বলেন, ‘হেজবোল্লা যদি এ ভাবে হামলা চালিয়ে যেতে থাকে, তা হলে ওরা এমন আক্রমণের সম্মুখীন হবে, যা ওদের কল্পনাতীত। একই কথা খাটে ইরানের ক্ষেত্রেও।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *