দেশের দীর্ঘতম কেবল সেতু ‘সুদর্শন সেতুর’ উদ্বোধন করলেন মোদি

দেশের দীর্ঘতম কেবল সেতুর উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। গুজরাতের দ্বারকায় অবস্থিত সেতুটি ওখার সঙ্গে বেইট দ্বারকাকে যুক্ত করেছে। অর্থাৎ নতুন ও পুরনো দ্বারকার মধ্যে সংযোগ সাধন করবে এই ২.৩২ কিমি দীর্ঘ সেতুটি। যা নির্মাণে খরচ পড়েছে ৯৭৯ কোটি টাকা। ‘সুদর্শন সেতু’ নামের এই সেতুটি ২৭.২ মিটার চওড়া। চারটি লেন বিশিষ্ট সেতুটির দুদিকে ২.৫ মিটারের ফুটপাথ রয়েছে।

২০১৭ সালে এই সেতুর ভিত্তিপ্রস্তরও স্থাপন করেছিলেন মোদিই। সেই সময়ই তিনি জানিয়েছিলেন, পুরনো দ্বারকা ও নতুন দ্বারকার মধ্যে সংযোগ স্থাপন হতে চলেছে এই সেতুর মাধ্যমে। অবশেষে বাস্তবায়িত হতে চলেছে সেই পরিকল্পনা। চারটি লেনের এই সেতু ২৭.২০ মিটার চওড়া। প্রতিটি লেনের পাশে থাকছে ২.৫০ মিটার চওড়া ফুটপাথ। এই সুদর্শন সেতুর ডিজাইনেও রয়েছে কিছু বিশেষত্ব। ভগবৎ গীতার শ্লোকের ওপর ভিত্তি করে তৈরি হয়েছে এই সেতু। দুদিকেই রয়েছে কৃষ্ণের প্রতিকৃতি।

এদিনের উদ্বোধনকে ঘিরে সেজে উঠেছে দ্বারকা। গুজরাতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হর্ষ সাংভি শনিবারই জানিয়েছিলেন, ‘যেভাবে দ্বারকা সেজেছে তা কেবল জন্মাষ্টমীর সময়ই দেখা যায়। প্রধানমন্ত্রী আগমনের আগেই গোটা শহরটা সাজিয়ে তোলা হয়েছে। সকলেই রয়েছেন মোদির প্রতীক্ষায়।’

এর আগে এই সেতুর নাম ছিল সিগনেচার ব্রিজ। গুজরাতের ওখা বন্দরের কাছে অবস্থিত বেট দ্বারকা হল একটি দ্বীপ, যা মূল দ্বারকা শহর থেকে প্রায় ৩০ কিলোমিটা দূরে অবস্থিত। এই দুই জায়গার মধ্যে সংযোগ স্থাপন করতেই এই সেতু তৈরি করা হয়েছে। মূল দ্বারকা শহরেই রয়েছে বিখ্য়াত দ্বারকাধীশ মন্দির।

এদিনই গুজরাতের প্রথম এইমস হাসপাতালের উদ্বোধন করবেন তিনি। রাজকোটে তৈরি হয়েছে সেই হাসপাতাল। এছাড়া অন্ধ্র প্রদেশ, পঞ্জাব, উত্তর প্রদেশ ও পশ্চিমবঙ্গে তৈরি হওয়া এইমস-এর উদ্বোধনও ভার্চুয়াল মাধ্যমে করবেন মোদি। পরে এদিন সন্ধ্যায় তিনি যোগ দেবেন মেগা রোড শো-তে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *