মেসির সতীর্থ বললেন ইস্টবেঙ্গলের সমর্থকদের মন জয় করবোই

বার্সেলোনার থেকে কলকাতার দূরত্ব অনেক। তবে এই দুই ক্লাবে একটা বিষয়ে কিছুটা মিল রয়েছে। সেটা হল জার্সির রং। লাল-হলুদে সই করে উচ্ছ্বসিত বার্সেলোনার ফুটবল অ্যাকাডেমি লা মাসিয়ায় বেড়ে ওঠা ভিক্টর ভাসকেজ। লিও মেসি, আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা, সের্গিও বুস্কেতস, জেরার্ড পিকের মতো কিংবদন্তি ফুটবলাররাও সেখান থেকেই উঠে এসেছেন। বার্সেলোনার দুই কিংবদন্তি সেস ফ্যাব্রেগাস ও লিও মেসির সতীর্থ এই ভিক্টর ভাসকেজ। লাল-হলুদে সই করেই যা বললেন, সমর্থকদের মন জয় করতে বাধ্য।

বার্সেলোনার সিনিয়র দলে প্রথম খেলেন ২০০৮ সালে। পেপ গুয়র্দিওলার সেই বার্সেলোনা টিম ব্যাপক সাফল্য পেয়েছিল। ২০০৮ সালে বার্সেলোনা সিনিয়র টিমে অভিষেক হলেও প্রথম গোলের জন্য অপেক্ষা করতে হয়েছে দীর্ঘদিন। আর সেটা হয়েছে অনেক বড় মঞ্চে। ২০১০-২০১১ উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বে এফসি রুবিন কাজানের বিরুদ্ধে বার্সেলোনা জার্সিতে প্রথম গোল ভিক্টরের। মেক্সিকো, কাতার, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্লাবেও খেলেছেন। এ বার ভারতীয় ফুটবলে নতুন সফর শুরু হতে চলেছে মেসিদের প্রাক্তন সতীর্থর।

লাল-হলুদ সমর্থদকদের প্রিয় স্লোগান, ‘জয় ইস্টবেঙ্গল’ ভিক্টরের কথায়। ইস্টবেঙ্গলে সই করে বার্সেলোনার এই প্রাক্তন মিডফিল্ডার বলছেন, ‘ইমামি ইস্টবেঙ্গলে সই করে খুবই ভালো লাগছে। ইস্টবেঙ্গল সম্পর্কে অনেক কিছু শুনেছি। ক্লাবের ঐতিহ্য, সমর্থকদের আবেগ সম্পর্কে কোচ কার্লেস কুয়াদ্রাত ও দিমাসের কাছ থেকে জেনেছি। ভারতীয় ফুটবলে যাত্রা শুরু করতে মুখিয়ে রয়েছি। চেষ্টা করব ভারতের আইকনিক ক্লাবের সাফল্যে অবদান রাখার। জয় ইস্টবেঙ্গল।’

কোচ কার্লেস কুয়াদ্রাতের পছন্দ ইস্টবেঙ্গল ডিফেন্ডার হিজাজি মাহের। ইতিমধ্যেই লাল-হলুদ সমর্থকদের নয়নের মণি হয়ে উঠেছেন হিজাজি। ভিক্টরকেও পছন্দ করেছেন কার্লেস কুয়াদ্রাতই। ‘প্রফেসরের’ বেছে নেওয়া ফুটবলারে আস্থা রাখছেন লাল-হলুদ সমর্থকরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two + eighteen =