প্যারলে বাপের বাড়িতে গেলেন অনুপম হত্যাকাণ্ডের অন্যতম অভিযুক্ত মনুয়া সিংহ রায়

প্যারলে বাপের বাড়িতে গেলেন অনুপম হত্যাকাণ্ডের অন্যতম অভিযুক্ত মনুয়া সিংহ রায়। বর্ধমান সংশোধনাগার থেকে সোমবার দুপুরে তাকে প্রথমে বারাসাত থানায় আনা হয়। সেখানে প্রয়োজনীয় কাজকর্ম সেরে তাকে বারাসাতের নবপল্লির ষষ্ঠীপুকুরে তার বাপের বাড়িতে পাঠানো হয় পুলিশি নজরদারিতে। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে বাবা মায়ের অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে সে বাড়িতে এসেছে মাত্র ৬ ঘণ্টার জন্য। তার বাড়িতে ফেরায় এলাকার মানুষের মধ্যে কানাঘুষো শুরু হয়েছে। মেয়ে বাড়িতে ফেরায় কান্নায় ভেঙে পড়ে মা।

দীর্ঘদিন সংশোধনাগারে থাকার পর অবশেষে প্রথমবার অনুপম হত্যাকাণ্ডের মূল অভিযুক্ত অনুপমের স্ত্রী মনুয়া সিংহ রায় বাড়ি আসলেন। এদিন দুপুরেই বারাসাত থানা থেকে তার আপের বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হয়। যদিও সংবাদ মাধ্যমের উপস্থিতি দেখেই মনুয়া তার মুখ ওড়না দিয়ে ঢেকে দেয়। একটিও কথা বলেননি সংবাদ মাধ্যমের সামনে। বিবাহের দেড় বছরের মাথায় ২০১৭ সালে ২ মে তার স্বামী অনুপম সিংহকে মনুয়া তার প্রেমিক অজিত রায়কে দিখে খুন করায়। পরদিন বাড়ি থেকে অনুপমের দেহ উদ্ধার করে বারাসাত থানার পুলিশ। সেদিন কাজ থেকে ফিরে রাত্রে যখন অনুপম হৃদয়পুরে তার নিজের বাড়িতে ঢোকে তখনই তাকে নৃশংসভাবে খুন করে অজিত। খুনের সমস অজিত ফোনে অনুপমের আর্তনাদ শুনিয়েছিল মনুয়াকে। মনুয়া ও অজিত উভয়ই পরিকল্পনা করেই এই খুন করেছিল বলে পরবর্তীতে পুলিশি তদন্তে উঠে এসেছিল। পরকীয়ার জেরে সেই নৃশংস খুনের ঘটনা সেই সময় রাজ্য রাজনীতিতে তোলপাড় হয়েছিল। তবে পুলিশি তদন্ত ও সরকার পক্ষের আইনজীবীদের জোরদার সাওয়ালের কারণে বিচারক তাদের দোষী সাব্যস্ত করে। এবং আদালতের আদালতের নির্দেশে তাকে দমদম সেন্ট্রাল জেলে পাঠানো হয়েছিল। পরবর্তীতে করোনার সময় দমদম সংশোধনাগারে বন্দি বিক্ষোভের কারণে তাকে বর্ধমান সংশোধনাগারে পাঠানো হয়। সেখান থেকেই এদিন তাকে বারাসাতে আনা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *