থামল সন্তুরের ঝঙ্কার, প্রয়াত কিংবদন্তি সন্তুরবাদক পণ্ডিত শিবকুমার শর্মা

প্রয়াত কিংবদন্তি সন্তুরবাদক পণ্ডিত শিবকুমার শর্মা (Shivkumar Sharma)। মঙ্গলবার মুম্বইয়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন শিল্পী। গত ৬ মাস  ধরে কিডনির সমস্যায় ভুগছিলেন শিবকুমার শর্মা। নিয়মিত ডায়ালিসিস চলত তাঁর। শিল্পীর বয়স হয়েছিল ৮৪।

১৯৩৮ সালে ১৩ জানুয়ারি জম্মুতে জন্ম হয় শিবকুমার শর্মার। তাঁর বাবা উমা দত্ত শর্মা ছিলেন প্রথিতযশা সংগীত শিল্পী। বাবার ইচ্ছেতেই মাত্র ৫ বছর বয়সেই সংগীত ও তবলার প্রশিক্ষণ শুরু হয় তাঁর। তবে শিবকুমারের বাবা চেয়েছিলেন সন্তুরবাদক হিসেবেই ভবিষ্যৎ তৈরি হোক তাঁর। ১৩ বছর বয়স থেকেই তাই সন্তুরের অনুরাগী হয়ে ওঠেন শিব। ১৯৫৫ সালে মুম্বইয়ে প্রথমবার জনসমক্ষে নিজের প্রতিভা প্রর্দশন করে নজর কেড়ে নেন শিল্পী। সঙ্গীত নাটক অ্যাকাডেমি-সহ জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক বহু পুরস্কার পেয়েছেন শিবকুমার। ২০০১ সালে পান পদ্মবিভূষণ। এ ছাড়াও আমেরিকার সম্মাননীয় নাগরিকত্ব প্রদান করা হয় তাঁকে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি শোকপ্রকাশ করে লিখেছেন, ‘আমাদের সাংস্কৃতিক জগৎ রিক্ত হল পণ্ডিত শিবকুমার শর্মার প্রয়াণে। সন্তুর যন্ত্রটিকে তিনি বিশ্বের দরবারে বিশেষ মর্যাদায় প্রতিষ্ঠা করেছেন।’

শিবকুমার শর্মার প্রয়াণে শোকপ্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। টুইটে তিনি লিখলেন, ‘কিংবদন্তি সন্তুরবাদক ও আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন শিল্পী পণ্ডিত শিবকুমার শর্মার প্রয়াণে শোকাহত। শিল্পীর প্রয়াণ সাংস্কৃতিক জগতের খুব বড় ক্ষতি।’

শিল্পীর প্রয়াণে শোকজ্ঞাপন করেছেন উস্তাদ আমজাদ আলি খান। তিনি লেখেন, ‘পণ্ডিত শিবকুমার শর্মার প্রয়াণ একটি যুগাবসান। তিনি সন্তুর যন্ত্রটির অগ্রণী শিল্পী। আমার কাছে অবশ্য এটা ব্যক্তিগত শোকের মুহূর্ত। ওঁর আত্মার শান্তি কামনা করছি। ওঁর সঙ্গীত বাজতে থাকুক আমাদের হৃদয়ে।’

তবে শুধুই শাস্ত্রীয় সঙ্গীত নয়। বলিউড ছবিতেও পণ্ডিত হরিপ্রসাদ চৌরাসিয়ার বাঁশির সঙ্গে মিশে যায় শিবকুমারের সন্তুরের ছন্দ। ‘সিলসিলা’, ‘ডর’, ‘চাঁদনি’, ‘লমহে’র মতো জনপ্রিয় ছবিতে শিব-হরি জুটির সুর আজও জনপ্রিয় সংগীতপ্রেমীদের মধ্যে।  শিবকুমার শর্মার পথ অনুসরণ করেছেন তাঁর পুত্র রাহুল শর্মাও। সন্তুরবাদক হিসেবে সংগীত জগতে ইতিমধ্যেই নজর কেড়েছেন রাহুল। শিবকুমারের প্রয়াণে শোকস্তব্ধ সঙ্গীতমহল।

শিবকুমার আর হরিপ্রসাদ চৌরাসিয়ার যুগলবন্দি কিংবদন্তির পর্যায়ে পৌঁছে গিয়েছিল। এদিন শিবকুমারের প্রয়াণের সঙ্গে সঙ্গে থেমে গেল সেই জুটির ম্যাজিক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

17 + eighteen =