খুব শীঘ্রই উপত্যকায় ফিরবেন কাশ্মীরি পণ্ডিতরা, আত্মবিশ্বাসী মোহন ভগবত

আগামী বছর কাশ্মীরে নিজ বাড়িতেই নবরেহ উদযাপনের সঙ্কল্প পূরণ করতে হবে কাশ্মীরি হিন্দুদের। কাশ্মীরি হিন্দুদের উদ্দেশে বললেন রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘ (RSS) সরসঙ্ঘচালক মোহন ভাগবত। রবিবার ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে কাশ্মীরি হিন্দুদের সঙ্গে মিলিত হয়ে মোহন ভাগবত বলেছেন, চরমপন্থীদের জন্য আমরা কাশ্মীর ছেড়েছিলাম, কিন্তু এখন যখন আমরা ফিরব তখন আমরা আমাদের নিরাপত্তা জীবিকার নিশ্চয়তা নিয়ে হিন্দু ভারতভক্তহিসেবে ফিরব। আমরা এমনভাবে বাঁচব যাতে কেউ আমাদের স্থানচ্যুত করতে সাহস না পায়

আরএসএসএর সরসঙ্ঘচালক মোহন ভাগবত রবিবার নবরেহ উদযাপনের সময় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে কাশ্মীরি হিন্দু এবং পণ্ডিতদের সম্বোধন করেন। সঞ্জীবনী শারদা কেন্দ্র এপ্রিল ত্যাগ বীরত্ব দিবস উদযাপন করছে। এদিন ভার্চুয়ালি মিলিত হয়ে মোহন ভাগবত বলেছেন, আগে আমি বলেছিলাম জনসচেতনতার মাধ্যমে কাশ্মীরি পণ্ডিতদের সমস্যা সমাধান করা হবে, ৩৭০ অনুচ্ছেদ অপসারণ করা আবশ্যক। ২০১১ সালের পর, এই ১১ বছরে আমাদের সম্মিলিত প্রচেষ্টার কারণে ৩৭০ ধারা আর নেই। মোহন ভাগবত আরও বলেছেন, আমরা (কাশ্মীরি পণ্ডিতরা) বিগত দশক ধরে নিজেদেরই দেশে নিজস্ব বাড়ি থেকে বাস্তুচ্যুত হওয়ার যন্ত্রণা ভোগ করছি। এটা অপরিহার্য যে এই পরিস্থিতিতে আমাদের পরাজয় মেনে নেওয়া উচিত নয় এবং চ্যালেঞ্জগুলির মুখোমুখি হওয়া উচিত

অভিশপ্ত সেই দিনগুলির পর কেটে গিয়েছে ৩০ বছর। নিজভূমে পরবাসী হয়ে যাওয়া হাজার হাজার কাশ্মীরি পণ্ডিতদের ঘরে ফেরা আজও হয়ে ওঠেনি। এই তিন দশকে প্রায় ১৪ বছর কেন্দ্রে সরকার চালিয়েছে কংগ্রেস। প্রায় সমান সময়ে ক্ষমতায় থেকেছে বিজেপিও। কিন্তু বাস্তব হল কোনও সরকারই কাশ্মীরি পণ্ডিতদের পুনর্বাসনের জন্য উপযুক্ত পদক্ষেপ করেনি। যার ফলস্বরূপ আজ উপত্যকায় বসবাস করছেন মোটে হাজার তিনেক কাশ্মীরি পণ্ডিত। বিতাড়িত এই পণ্ডিতদের হাজার হাজার বাড়িঘর, সম্পত্তি আজও পরিত্যক্ত। আরএসএস প্রধানের আশ্বাস, সেই বাড়িগুলি দ্রুত ফিরে পাবেন পণ্ডিতরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

twenty + 12 =