অর্জুনদা তৃণমূলে যেতে বাধ্য হয়েছিলেন দাবি জিতেন্দ্র তেওয়ারির

“অর্জুনদা তৃণমূলে যেতে বাধ্য হয়েছিলেন। অন্তর থেকে উনি তৃণমূলে যাননি। বিজেপি কর্মীদের অত্যাচারের হাত থেকে বাঁচাতে উনি তৃণমূলে গিয়েছিলেন।” বৃহস্পতিবার সকালে নৈহাটির বড়মার মন্দিরে পুজো দিয়ে এমনটাই দাবি করলেন আসানসোলের প্রাক্তন বিধায়ক তথা বিজেপি নেতা জিতেন্দ্র তেওয়ারি। শক্তি মায়ের কাছে তিনি সকলের মঙ্গল কামনা করলেন। এরপর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে আসানসোলের তৃণমূল প্রার্থী শত্রুঘ্ন সিনহাকে কটাক্ষ করে বিজেপি নেতা জিতেন্দ্র তেওয়ারি বলেন,’ জেলা হাসপাতাল সুপারের নাম উনি জানেন না। বিভিন্ন কলেজের অধ্যক্ষদের নামও উনি জানেন না। ভালো শিক্ষাবিদদের নামও হয়তো উনি জানেন না। তৃণমূলের পদাধিকারী কারা, তাদেরও উনি জানেন না। এরপর ওনার জেতা উচিত কিনা, সেটা আসানসোলের মানুষ ঠিক করবে।’ গার্ডেনরিচে নির্মীয়মাণ বহুতল ভেঙে মৃত্যু মিছিল নিয়ে তাঁর প্রতিক্রিয়া, সুভাষ চন্দ্র বসু যেই চেয়ারে বসেছিলেন। সেই চেয়ারে বসে কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম দায় এড়াতে পারেন না। জিতেন্দ্রর দাবি, মোদীজীর মুখ আর পদ্মফুল। এটা দেখেই ভোট হবে। কে প্রার্থী হলেন, সেটা বড় বিষয় নয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *