ফ্রান্সে আটকে থাকা বিমানের ভারতীয় যাত্রীদের সঙ্গে দেখা ভারতীয় দূতাবাসের

প্যারিস, ২৪ ডিসেম্বর: ফ্রান্সে আটকে থাকা বিমানের ৩০৩ জন ভারতীয় যাত্রীর সঙ্গে দেখা করলেন ভারতীয় দূতাবাসের আধিকারিকরা। সেখানে ২১ মাসের শিশু সহ বেশ কয়েক জন নাবালক রয়েছে বলে দাবি করল ফ্রান্সের একটি সংবাদমাধ্যম। তাদের দাবি, ১৩ জন নাবালক অভিভাবকহীন।
ফ্রান্সের ভারতীয় দূতাবাসের তরফে জানানো হয়েছে, ভারতীয় কূটনীতিকরা যাত্রীদের সঙ্গে দেখা করার পর ঘটনার তদন্তের পাশাপাশি তাঁরা যাতে ভালো থাকেন, তা-ও নিশ্চিত করা হয়েছে। ক্রিসমাসের ছুটির মধ্যেও এই বিষয়ে ভারতকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য ফরাসি কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানিয়েছে দূতাবাস। ভারতের তরফে তড়িঘড়ি সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করা হচ্ছে।
প্রসঙ্গত, দুবাই থেকে নিকারাগুয়া যাওয়ার পথে ৩০৩ জন ভারতীয় যাত্রী-সহ একটি বিমান আটক করেছে ফ্রান্স। মার্ন অঞ্চলের ভ্যাট্রি বিমানবন্দরে জ্বালানি ভরতে নেমেছিল বিমানটি। ফরাসি কর্তৃপক্ষ জানায়, ওই বিমানের যাত্রীরা মানুষ পাচার চক্রের শিকার হয়ে থাকতে পারেন বলে এক অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তি তাদের জানান। তারপরই বিমানটিকে আটক করে ভ্যাট্রি বিমানবন্দরের রিসেপশন হলে রাখা হয় যাত্রীদের। দুই ব্যক্তিকে হেপাজতে নিয়েছে ফরাসি পুলিশ। ফরাসি পুলিশের সংগঠিত অপরাধ দমন শাখা, সীমান্ত পুলিশ ও উড়ান নিরাপত্তা সংস্থা ঘটনার তদন্ত করে দেখছে এই ঘটনার পিছনে কে বা কারা রয়েছে।
ফরাসি আইন অনুযায়ী, অন্য দেশের নাগরিক প্রাথমিক ভাবে চার দিন আটক থাকতে পারে ফরাসি পুলিশের কাছে। পরে বিচারকের অনুমতিতে অবশ্য আট দিন পর্যন্ত আটক রাখা যায়। অনেক ক্ষেত্রেই ২৬ দিন পর্যন্ত রাখা যায়। মানুষ পাচারের অপরাধ প্রমাণিত হলে ফ্রান্সে ২০ বছর পর্যন্ত কারাবাস হতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *