২০২৪-এ আমেরিকায় নির্বাচন, রিপাবলিকান প্রার্থী হিসেবে উজ্জ্বল হিন্দু ধর্মে বিশ্বাসী বিবেক রামস্বামী

২০২৪ সালে আমেরিকায় নির্বাচন। ইতিমধ্যেই জোরকদমে প্রচারে নেমে পড়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থীরা। ডোনাল্ড ট্রাম্পের পরই রিপাবলিকান প্রার্থী হিসেবে যাঁর নাম উজ্জ্বল হয়ে উঠেছে তিনি বিবেক রামস্বামী। আর তাঁর মুখেই উঠে এল হিন্দুত্ব প্রসঙ্গ। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক নিজেকে ‘গর্বিত হিন্দু’ বলে থাকেন। এবার প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী রামস্বামীকেও তাঁর হিন্দু ধর্মবিশ্বাস নিয়ে কথা বলতে দেখা গেল। একই ভাবে তিনি কথা বলেছেন খ্রিস্টান ধর্ম নিয়ে।

ঠিক কী বলেছেন তিনি? রামস্বামীর কথায়, আমার বিশ্বাস সেটা যেটা আমাকে স্বাধীনতা দেয়। আমার বিশ্বাস সেটাই যেটা আমাকে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারে পথ দেখাচ্ছে। আমি একজন হিন্দু। আমি বিশ্বাস করি একজন সত্যিকারের ঈশ্বরে। আমার বিশ্বাস, ঈশ্বর আমাদের সকলকে কোনও না কোনও উদ্দেশ্যে পাঠিয়েছেন। আমার বিশ্বাস আমাকে শিখিয়েছে আমাদের সকলের একটা কর্তব্য রয়েছে। একটা নৈতিক কর্বয়্য। এভাবেই ঈশ্বর আমাদের কাজে মিশে রয়েছেন। আমরা এখনও বিশ্বাস করি সকলের মধ্যেই ঈশ্বর রয়েছেন। এটাই আমার বিশ্বাসের মূল কথা।

তাঁর পরিবার তাঁকে কীভাবে মূল্যবোধের শিক্ষা দিয়েছে, বিয়ে কিংবা পরিবার ও বড়দের শ্রদ্ধা করতে শিখিয়েছে সে ব্যাপারেও মুখ খুলেছেন রামস্বামী। সেই সঙ্গে খ্রিস্টান স্কুলে পড়ার অভিজ্ঞতার কথাও সকলের সঙ্গে ভাগ করে নিতে দেখা গিয়েছে তাঁকে। রামস্বামী বলেছেন, আমি খ্রিস্টান হাই স্কুলে যেতাম। সেখানে কী শিখেছি আমরা? আমরা শিখেছি টেন কমান্ডমেন্টস। আমরা পড়েছি বাইবেল। ক্লাস করেছি। ঈশ্বর বাস্তব। একজন সত্যিকারের ঈশ্বর রয়েছে। তবে সেই সঙ্গে তিনি বলেন, একজন প্রেসিডেন্ট কি দেশে খ্রিস্টধর্মের প্রচার করতে পারবেন? আমি পারব না। কিন্তু আমি কি তাঁদের পাশে দাঁড়াব না যাঁরা মূল্যবোধের কথা বলবেন? আমি কি পরবর্তী প্রজন্মের জন্য সেটা উদাহরণ দিতে পারব না? ঠিক ধরেছেন। অবশ্যই আমি তা করব। কেননা সেটা আমার কর্তব্য। আগামী বছর মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। তার আগে নানা বিষয়ে কথা বলতে দেখা যাচ্ছে প্রার্থীদের। এবার রামস্বামীর কথায় উঠে এল তাঁর ধর্মবিশ্বাসের কথা। আগামী নির্বাচনে যে ধর্মও একটা ফ্যাক্টর, তা পরিষ্কার হয়ে গেল তাঁর কথায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

fourteen + eleven =