কাতারে বন্দি ৮ নৌসেনার প্রাক্তন আধিকারিকের ফাঁসি রদ

চরবৃত্তির অপরাধে ভারতীয় নৌসেনার আট প্রাক্তন আধিকারিকের মৃত্যুদণ্ডের সাজা রদ করল কাতার। সে দেশের সংশ্লিষ্ট আদালত ভারত সরকারের আবেদনে সাড়া দিয়ে মৃত্যুদণ্ডের সাজা কমানোর কথা জানিয়েছে। উল্লেখ্য, অক্টোবর মাসে নিম্ন আদালত ওই আট জন প্রাক্তন ভারতীয় নৌসেনা আধিকারিককে ইজরায়েলের হয়ে চরবৃত্তির দায়ে মৃত্যুদণ্ডের সাজা দিয়েছিল। তাঁদের সাজা বদলে কারাবাসের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বিদেশ মন্ত্রকের তরফে বৃহস্পতিবার বলা হয়েছে, আবেদন মেনে কাতারের আদালত মৃত্যুদণ্ডের সাজা মকুব করেছে।  বিদেশ মন্ত্রকের এক আধিকারিক বলেন, ‘আমরা এ বিষয়ে কাতারের আদালতে পূর্ণাঙ্গ রায়ের প্রতীক্ষা করছি।’

গত বছর অগস্ট মাসে এই আট জন অফিসারকে আটক করেছিল কাতারের গোয়েন্দা সংস্থা। একটি বেসরকারি সংস্থায় কাজ করতেন তাঁরা। ঠিক কী কারণে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়েছিল, প্রথমে তা দোহার ভারতীয় দূতাবাসকেও জানানো হয়নি বলে অভিযোগ। এর পর চলতি বছরের এপ্রিলে আদালতে আইনি প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার পর জানা যায়, তাঁদের বিরুদ্ধে চরবৃত্তির অভিযোগ আনা হয়।

কাতারে মৃত্যুদণ্ডের সাজামুক্ত প্রাক্তন নৌসেনা কর্তারা হলেন, ক্যাপ্টেন নবতেজ সিং গিল, ক্যাপ্টেন বীরেন্দ্রকুমার বর্মা, ক্যাপ্টেন সৌরভ বশিষ্ঠ, কমান্ডার অমিত নাগপাল, কমান্ডার পূর্ণেন্দু তিওয়ারি, কমান্ডার সুগুণাকর পাকালা, কমান্ডার সঞ্জীব গুপ্তা এবং নাবিক রাজেশ। কাতারের সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণ দেওয়ার কাজে নিযুক্ত বেসরকারি সংস্থায় কর্মরত ছিলেন নৌসেনার অবসরপ্রাপ্ত এই আট আধিকারিক। একাধিকবার শুনানির পরে অক্টোবর মাসে ৮ জনকে মৃত্যুদণ্ড দেয় কাতারের আদালত। নৌসেনা কর্মীদের হয়ে আইনি পদক্ষেপ করতে শুরু করে ভারত। এমাসেই ভারতীয় প্রতিনিধিরা তাঁদের সঙ্গে দেখা করার অনুমতি পান। তার আগেই দুবাইয়ের জলবায়ু সম্মেলনে কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদের সঙ্গে কথা হয় মোদির। প্রবাসী ভারতীয়দের উন্নতি নিয়েও আলোচনা হয় দুজনের মধ্যে। অবশেষে মিলল স্বস্তি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *