বৃদ্ধর সৎকারে ভিন্ন সম্প্রদায়, ২ বিরোধী দলের কাউন্সিলর

নিজস্ব প্রতিবেদন, আসানসোল: এক শতায়ু বৃদ্ধর মৃত্যুর পরে তাঁর দেহ সৎকারে আসানসোলে মানবিকতার অসাধারণ রাজনৈতিক নজির তৈরি হল। আর এই নজির তৈরি করলেন আসানসোল পুরনিগমের ২৫ নং ওয়ার্ড ও ২৯ নং ওয়ার্ডের কংগ্রেস ও বিজেপির দুই কাউন্সিলর এসএম মুস্তাফা ও গৌরব গুপ্ত। তাঁদের সঙ্গে অবশ্যই ছিলেন এলাকার সংখ্যালঘু ও অন্য সম্প্রদায়ের মানুষ।
আসানসোল পুরনিগমের রেলপাড়ের ২৫ নম্বর ওয়ার্ডের ওকে রোতের ১০৫ বছরের বৃদ্ধ উমাশঙ্কর গুপ্ত মারা যান। কিন্তু, ওই এলাকার প্রায় সকল বাসিন্দারা হচ্ছেন সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের। স্থানীয়রা ওই বৃদ্ধর মৃত্যুতে স্থানীয় কংগ্রেস কাউন্সিলর এসএম মুস্তাফাকে ডাকেন। তিনি সঙ্গে সঙ্গে আসেন। এলাকার ছেলেদেরকে সঙ্গে নিয়ে সৎকারের বেশ কিছু কাজ এগিয়ে দিয়ে ফোন করেন পাশের ২৯ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর বিজেপির গৌরব গুপ্তকে। গৌরববাবু কিছু ছেলে নিয়ে আসেন।
গৌরব বলেন, ‘দেহ সৎকারের জন্য যা লাগার কথা তার প্রায় সবটাই কংগ্রেসের কাউন্সিলর ও এলাকার বাসিন্দারা করেছিলেন। এরপর একসঙ্গে বৃদ্ধর দেহ হিন্দু ও মুসলিম ভাইয়েরা নিয়ে যান আসানসোলের শ্মশানে। সেখানে সকলে উপস্থিত থেকে দেহ সৎকার করলেন।’ এই প্রসঙ্গে এসএম মুস্তাফা বলেন, ‘এটা হিন্দু মুসলমানের বিষয় নয়। দীর্ঘদিন একজন এলাকায় ছিলেন। তিনি আমাদের ছেড়ে চলে গেলেন। তাই আমরা দেহ সৎকারের কাজ করলাম। যেহেতু ওই বৃদ্ধর পরিবার অত্যন্ত গরিব।’ পরবর্তী যে পারলৌকিক ক্রিয়া হবে, তা এই দুই কাউন্সিলর ও স্থানীয় মানুষেরা এক সঙ্গে করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *