সাঁওতালডিহি তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের ৫০ বছর পূর্তি ঘিরে বিতর্ক, ক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদন, পুরুলিয়া: পুরুলিয়ার সাঁওতালডিহি তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের ৫০ বছর পূর্তির উদ্বোধনে এলাকার বিধায়ক থেকে শুরু করে পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি, পঞ্চায়েত প্রধান সহ জনপ্রতিনিধিরা অনুষ্ঠানে ডাক পাননি না বলে অভিযোগ। আর এই নিয়ে তৈরি হয়েছে বিতর্ক।
এলাকার তথা সাঁওতালডিহি তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র লাগোয়া রঘুনাথপুর ২ নম্বর ব্লকের আগুইটাঁড় গ্রামের বাসিন্দা বিজেপি বিধায়ক নদিয়ারচাঁদ বাউরি এদিন সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেন, ‘এই সাঁওতালডিহি তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রটি পুরোটাই তার বিধানসভা এলাকার অন্তর্গত রঘুনাথপুর ২ নম্বর ব্লকের জমিতে গড়ে উঠেছে। এই তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের কোনও সমস্যা দেখা দিলেই ছুটে যাই ও সমাধানের চেষ্টা করি রাজনীতির বাইরে থেকে। কিন্তু আজ খুব মর্মাহত যে সেই তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের ৫০ বছর পূর্তির অনুষ্ঠানে ডাক পেলাম না একজন বিধায়ক হয়েও। এই অনুষ্ঠানের জন্য তিন কোটি টাকা খরচ করা হয়েছে শুনেছি। আমি আভাস পাচ্ছি সেই টাকা চুরি করতেই বিদ্যুৎ মন্ত্রীকে ডাকা হলেও এলাকার জনপ্রতিনিধিদের ডাকা হয়নি।’
তাঁর আরও অভিযোগ, বিজেপি দলের বিধায়ক হওয়ার জন্য তাঁকে আমন্ত্রণ হয়তো জানানো হয়নি। কিন্তু শাসক দলেরই পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি থেকে প্রধান, জেলা পরিষদের সদস্যদের থেকে জনপ্রতিনিধিদের ডাকা হয়নি। তাই এটাই পরিষ্কার এলাকার জনপ্রতিনিধিদের আড়াল করে রেখে এই আয়োজনের জন্য বরাদ্দ অর্থ চুরি করার জন্যই তাঁদের ডাকা হয়নি বলে অভিযোগ তুলেছেন এলাকার বিধায়ক নদীয়ারচাঁদ বাউরি।
অন্যদিকে রঘুনাথপুর ২ নম্বর ব্লকের শাসকদলের পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি রিম্পা চক্রবর্তী ও সহ-সভাপতি গৌরাঙ্গ বাউরির দাবি, তা¥রাও খুবই মর্মাহত যে এদিন তাঁদের পঞ্চায়েত সমিতির মধ্যেই অবস্থিত সাঁওতালডিহি তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রটি, অথচ সেই কেন্দ্রের ৫০ বছর পূর্তির অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ পেলেন না। এই তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের আপদে বিপদে তাঁদের ছুটে যেতে হয়। এর রহস্যের কারণ জানতে চাওয়া হবে সাঁওতালডিহি বিদ্যুৎ কেন্দ্র কর্তৃপক্ষের কাছে।
রঘুনাথপুর ২ নম্বর ব্লকের চেলিয়ামাতে একটি অনুষ্ঠানে এসে এদিন পুরুলিয়া জেলা পরিষদের সভাধিপতি নিবেদিতা মাহাতোর দাবি, ‘বিষয়টি জানা নেই। খোঁজ নেব। তবে এটা উচিত নয়।’ উল্লেখ্য, শুক্রবার বিকেলে পুরুলিয়ার রঘুনাথপুর ২ নম্বর ব্লকের অন্তর্গত সাঁওতালডিহি তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের ৫০ বছর পূর্তির ফিতা কেটে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করলেন রাজ্যের বিদ্যুৎ মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের আর এক মন্ত্রী সন্ধ্যারানি টুডু পুরুলিয়া জেলা পরিষদের সভাধিপতি নিবেদিতা মাহাতো সহ বিদ্যুৎ দপ্তরের কর্তারা।
পুরুলিয়ার সাঁওতালডিহি তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রটির ১৯৭৩ সালের ১৫ অক্টোবর উদ্বোধন করেছিলেন তৎকালীন দেশের প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধি। যে জায়গায় এই তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রটি অবস্থিত, সেটা পুরোটাই রঘুনাথপুর ২ নম্বর ব্লকের মধ্যে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *