মমতার আসন নিয়ে কটাক্ষের জবাব দিল কংগ্রেস নেতৃত্ব

লোকসভায় কংগ্রেসের আসন পাওয়া নিয়ে মন্তব্যের জবাব দিল কংগ্রেস। তবে জবাব এলেও, তা খুব কড়া না হওয়ায় তথ্যভিজ্ঞ মহলের ধারণা, এখনও জোটের আশা বজায় রেখেছে কংগ্রেস।
প্রসঙ্গত, কংগ্রেস লোকসভা নির্বাচনে ৪০টি আসনও পাবে না বলে মন্তব্য করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শনিবার সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক জয়রাম রমেশ তার জবাবে বলেন, ‘আমরা আশা করছি, উনি এখনও বিরোধী জোট ‘ইন্ডিয়া’রই সদস্য এবং ওঁর দাবি অনুযায়ী, উনি এখনও বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াই করছেন।’ তবে এর পরেও মমতার সঙ্গে বাংলা নিয়ে আলোচনার পথ কংগ্রেস এখনও খোলা রেখেছে বলে মনে করছে রাজনীতির কারবারিদের একাংশ।
লোকসভা ভোটে বাংলায় তৃণমূলের সঙ্গে জোট বেঁধে লড়তে চাইছে কংগ্রেস। অন্য দিকে, বাংলার মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূলের নেত্রী মমতা ইতিমধ্যেই জানিয়ে দিয়েছেন জোট গোটা ভারতে থাকলেও বাংলায় তিনি একলাই লড়বেন। শুক্রবার রেড রোডের কেন্দ্র-বিরোধী ধর্নামঞ্চ থেকে কংগ্রেসকে কটাক্ষ করেছিলেন মমতা। লোকসভা নির্বাচনে প্রাপ্য আসনের ভিত্তিতে কংগ্রেস আদৌ দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম দল হবে কি না, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলে মমতা বলেছিলেন, ‘কংগ্রেস সারা দেশে ৪০টা আসন পাবে কি না জানি না!’ একই সঙ্গে কংগ্রেসকে বিজেপির চ্যালেঞ্জ সামলানোর বার্তাও দেন তিনি। মমতা বলেন, ‘আগে নিজের জায়গা দেখাও! পারলে বারাণসীতে গিয়ে বিজেপিকে হারাও। রাজস্থান তোমরা জেতা জায়গা হেরেছ। মধ্যপ্রদেশে গিয়ে বিজেপিকে হারাও।’ সম্প্রতি মুর্শিদাবাদের সভা থেকে মমতা বলেছিলেন যে, তিনি কংগ্রেসকে বাংলায় দু’টি আসন দিতে চেয়েছিলেন। মালদহে ওই দু’টি আসনে কংগ্রেসকে জিততে সাহায্য করবেন বলেও কথা দিয়েছিলেন। কিন্তু কংগ্রেস তাতে রাজি হয়নি। মমতা বলেছিলেন, ‘ওদের আরও সিট চাই। কিন্তু তা হবে না। বাংলায় তৃণমূল একা লড়বে। একটি আসনও কাউকে ছাড়বে না। কংগ্রেস একা লড়ুক ৪২টি আসনে।’
শনিবার পিটিআইকে কংগ্রেস নেতা জয়রাম রমেশ বলেন, ‘ওঁর দাবি অনুযায়ী, ওঁর (মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়) অগ্রাধিকার তালিকার শীর্ষে রয়েছে বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াই করা। আমরাও তা-ই চাই। তাই মনে হয় আমাদের যা করার তা একজোটে করা উচিত।’
কেন্দ্রে বিজেপিকে ঠেকাতে গত বছর জুনে জোট বেঁধেছিল কংগ্রেস-সহ বিরোধী দলগুলি। তবে লোকসভা ভোটের মুখে সেই জোটের জট ক্রমশই জটিল হচ্ছে। আলগা হচ্ছে বাঁধন, বলে মত রাজনীতির বিশেষজ্ঞদের। সম্প্রতি বিরোধী জোট ‘ইন্ডিয়া’ ছেড়ে বেরিয়েছেন জেডিইউ প্রধান নীতীশ কুমার। অন্য দিকে, মমতা জোট ছাড়ার কথা না বললেও স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, তিনি বাংলায় একাই লড়বেন। বিরোধী জোট ইন্ডিয়ার কোনও শরিক কংগ্রেস কিংবা সিপিএমকে একটিও আসন ছাড়বেন না।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

12 + one =