বিধি ভেঙে গার্লস হস্টেলের উদ্বোধনের অভিযোগ, বিতর্ক

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাঁকুড়া: নির্বাচন কমিশনের আদর্শ আচরণ বিধিকে কেয়ার না করে রীতিমতো তারিখ লেখা ফলক লাগিয়ে কলেজ হস্টেলের উদ্বোধন করার অভিযোগ উঠল বিষ্ণুপুরের ‘দলবদলু’ বিধায়ক তন্ময় ঘোষ। যা নিয়ে জলঘোলা শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে। প্রশ্ন উঠছে প্রশাসনের ভূমিকা নিয়েও। ইতিমধ্যেই বিষয়টি নিয়ে নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হয়েছে বিজেপি।
ভোটের মুখে বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রে বারবার বিভিন্ন বিতর্কে অস্বস্তিতে পড়তে হচ্ছে শাসকদলকে। কখনও বিক্ষুব্ধ নির্দলদের দলে টেনে আবার কখনও বিজেপির দেওয়াল লিখন মুছে বিতর্কের মুখে পড়েছে তৃণমূল। এবার বিষ্ণুপুরের ‘দলবদলু’ বিধায়ক তন্ময় ঘোষ নির্বাচনের আদর্শ আচরণবিধিকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে উদ্বোধন করে দিলেন আস্ত একটি গার্লস হস্টেল।
জানা গিয়েছে, বিষ্ণুপুরের রামানন্দ কলেজের নিবেদিতা গার্লস হস্টেলের সংস্কার কাজ চলছিল বেশ কিছুদিন ধরে। সম্প্রতি সেই সংস্কারের কাজ শেষ হয়। এরপর শনিবার রীতিমতো ঘটা করে সেই হস্টেলের ফলকের আবরণ উন্মোচন করে সংস্কার করা হস্টেলের উদ্বোধন করেন ওই কলেজের পরিচালন সমিতির সভাপতি তথা বিষ্ণুপুরের বিধায়ক তন্ময় ঘোষ। যা অস্বস্তিতে ফেলেছে তৃণমূলকে।
তন্ময় ঘোষ ২০২১ সালে বিধানসভা নির্বাচনে বিষ্ণুপুর বিধানসভা কেন্দ্র থেকে বিজেপির টিকিটে জয়লাভ করলেও, কয়েক মাসের মধ্যে তিনি তৃণমূলে যোগ দেন। স্বাভাবিক ভাবে ভোটের মুখে তন্ময় ঘোষের এমন কাজে বিধিভঙ্গের অভিযোগ তুলে নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হয়েছে বিজেপি। বিষয়টি নিয়েû মুখ খুলতে চাইছেন না তৃণমূলের কেউ। অস্বস্তিতে পড়ে মুখে কুলুপ এঁটেছে রামানন্দ কলেজ কর্তৃপক্ষও। বিষয়টি নিয়ে জিজ্ঞাসা করতেই তন্ময় ঘোষ প্রচারে খুব ব্যস্ত বলে দাবি করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

17 + 14 =