আইপিএলের গ্ল্যামার বাড়াতে ফিরতে পারে সমাপ্তি অনুষ্ঠান, ভাবনা বিসিসিআইয়ের

করোনার কোপে গত দু’বছরে অনেকটাই জৌলুস কমেছে আইপিএলের। তার আগে থেকে অর্থাৎ ২০১৯ সাল থেকেই একাধিক কারণে বন্ধ হয়েছে টুর্নামেন্টের সূচনা ও সমাপ্তি অনুষ্ঠান। তবে কোভিড পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসতেই সমাপ্তি অনুষ্ঠান ফেরানোর সিদ্ধান্ত নিল ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড।

২০১৯ সালে পুলওয়ামায় জঙ্গিহামলায় প্রাণ হারিয়েছেন সিআরপিএফ জওয়ানরা। সেবারই প্রথম আইপিএলে সূচনা ও সমাপ্তি অনুষ্ঠান না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল বিসিসিআই। জানানো হয়েছিল, এই অনুষ্ঠানের অর্থ বাঁচিয়ে শহিদদের পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হবে। ভাবা হয়েছিল, পরের মরশুম থেকে আবার ফিরবে আইপিএলের জৌলুস। কারণ সূচনা ও সমাপ্তি অনুষ্ঠান এই টুর্নামেন্টের অন্যতম আকর্ষণ। বলিউড তারকাদের পারফরম্যান্সে জমজমাট হয়ে ওঠে কোটি টাকার এই লিগ।

তবে ২০২০ সালে একেবারে বদলে যায় পরিস্থিতি। মারণ করোনা ভাইরাসের চোখ রাঙানিতে দেশে টুর্নামেন্টের আয়োজন করাই সম্ভব হয়নি। জানা যাচ্ছে, বিসিসিআই সমাপ্তি অনুষ্ঠানের জন্য টেন্ডার ডেকেছে। ইচ্ছুক আয়োজক সংস্থাগুলি এরপর দরপত্র জমা দেবে। এক লক্ষ টাকার বিনিময়ে দরপত্র তুলতে পারবে ইচ্ছুক সংস্থাগুলি।এখনও পর্যন্ত যা খবর আগামী ২৯ এপ্রিল আহমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদী স্টেডিয়ামে দেখা যাবে সমাপ্তি অনুষ্ঠান। আইপিএলের ইতিহাসে ২০১৯ এমন এক সাল, যেখানে ক্রোড়পতি লিগের শুরু এবং শেষে কোনও অনুষ্ঠান হয়নি। সেসময় আইপিএলের দেখাশোনার দায়িত্বে ছিল কমিটি অফ অ্যাডমিনিস্ট্রেটর্স (বর্তমানে নিস্ক্রিয়)। সেই কমিটি সিদ্ধান্ত নিয়েছিল যে, উদ্বোধনী ও সমাপ্তি অনুষ্ঠান করতে যে খরচ হয়, সেই টাকা পুলওয়ামা সন্ত্রাস হামলায় শহিদ সিআরপিএফ জওয়ানদের পরিবারের মধ্যে ভাগ করে দেওয়া হবে।

আইপিএল শুরুর ঠিক তিন দিন আগে ফ্যানদের সুখবর শুনিয়েছিল বিসিসিআই। ক্রোড়পতি লিগে মাঠে ফিরছে দর্শক। কোভিড বিধি মেনে ২৫ শতাংশ দর্শক নিয়েই মহারাষ্ট্রে ৫৫টি লিগ ম্যাচে হবে। অন্যদিকে শোনা যাচ্ছে যে, কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে হতে পারে কোয়ালিফায়ার ও এলিমিনিটরের ম্যাচগুলি।  বোর্ড সূত্রে খবর, ইতিমধ্যেই এ নিয়ে সবুজ সংকেত মিলেছে। অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট সংস্থাগুলিকে আহ্বান জানানো হয়েছে। বোর্ডের তরফে বলা হয়েছে, যারা অনুষ্ঠান আয়োজনে আগ্রহী, তাদের ১ লক্ষ টাকা নিয়ে আবেদন জানাতে হবে। ২৫ এপ্রিল থেকে কেনা যাবে দরপত্র। টি-টোয়েন্টির প্রাণ ফেরাতেই এই উদ্যোগ।

এমনিতে এবার মুম্বই ও পুণে মিলিয়ে মোট পাঁচটি স্টেডিয়ামে হচ্ছে এবারের আইপিএল। তবে ফাইনাল হওয়ার কথা গুজরাটের নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে। অর্থাৎ এই স্টেডিয়ামই এবারের সমাপ্তি অনুষ্ঠানের সাক্ষী থাকবে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

12 − 8 =