ইস্তফা দিচ্ছেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়, বৃহত্তর স্বার্থে পা রাখবেন রাজনীতিতে!

ইস্তফা দিচ্ছেন কলকাতা হাই কোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়।রবিবার এবিপি আনন্দকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে বিচারপতি জানান রাজনৈতিক ক্ষেত্রেই তিনি যেতে চলেছেন। সাক্ষাৎকারে বিচারপতি জানান, কলকাতা হাই কোর্টে তাঁর শেষ দিন সোমবার। তাঁর হাতে যে ক’টি মামলা রয়েছে, সোমবার সেগুলি ছেড়ে দেবেন। মঙ্গলবার তিনি রাষ্ট্রপতির কাছে পদত্যাগপত্র পাঠাবেন।

রাজ্যের শাসকদলের সমালোচনা করে বিচারপতি জানান, পশ্চিমবঙ্গ দুর্নীতিতে ছেয়ে গিয়েছে। আদালতের পরিসরে থেকে তিনি সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছতে পারছেন না।

বিচারপতি হিসেবে ইস্তফা দিয়ে তিনি রাজনীতিতে পা রাখতে পারেন তেমন ইঙ্গিত দিয়েছেন। সেক্ষেত্রে প্রশ্ন আসে, কোনও বিশেষ রাজনৈতিক দলে যোগ দেবেন কি! সে প্রশ্নের উত্তরে বিচারপতি কোনও নির্দিষ্ট রাজনৈতিক দলের নাম বলেননি। তবে সেটা যে কোনওভাবেই তৃণমূল নয় তা তাঁর কথায় স্পষ্ট। তাঁকে প্রশ্ন করা হয়, ‘আপনি কি লোকসভা ভোটে দাঁড়াতে চলেছেন?’ উত্তরে বিচারপতি বলেন, ‘যদি আমি কোনও রাজনৈতিক দলে যোগ দিই, তারা যদি আমাকে টিকিট দেয়, আমি বিবেচনা করে দেখব।’

কেন পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিলেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়?  বিচারপতি বলেন, ‘বর্তমান শাসকদলের অনেকে আমাকে চ্যালেঞ্জ করেছিলেন। চ্যালেঞ্জের মাধ্যমে আমাকে যে আহ্বান তাঁরা জানিয়েছেন, সেই আহ্বান আমাকে এই সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য করেছে। আমি এর জন্য শাসকদলকে অভিনন্দন জানাতে চাই।’

বিচারপতির কথায়, ‘রাজ্যের দুরবস্থা চলছে। অপমানজনক অধ্যায় চলছে। আমি মৌর্য সাম্রাজ্যের কথা শুনেছিলাম। এখন চৌর্য সাম্রাজ্য চলছে। বাঙালি হিসাবে আমার পক্ষে এটা মেনে নেওয়া সম্ভব নয়। যারা শাসক হিসাবে দেখা দিয়েছে, তারা রাজ্যের উপকার করতে পারবে বলে মনে হয় না। যদি না কড়া প্রহরা থাকে। তাই আমি শুভবুদ্ধিসম্পন্ন মানুষকে বলব, সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে।’

উল্লেখ্য, আগামী অগস্ট মাসে বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের অবসর গ্রহণের কথা ছিল। রবিবার তিনি জানিয়ে দিলেন, সময়ের আগেই তিনি পদ ছেড়ে দিচ্ছেন। বিচারপতির দায়িত্ব ছেড়ে বৃহত্তর ক্ষেত্রে পা রাখতে চলেছেন।

সাম্প্রতিক অতীতে কলকাতা হাই কোর্টে বিচারপতি হিসাবে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়। বলা চলে, তিনি চাকরিপ্রার্থীদের ‘মসিহা’ হয়ে উঠেছিলেন। শিক্ষাক্ষেত্রে দুর্নীতি সংক্রান্ত মামলায় একাধিক গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। যার অধিকাংশই শাসকদলের বিরুদ্ধে গিয়েছে। কুণাল ঘোষ-সহ তৃণমূলের একাধিক নেতা বিচারপতি গঙ্গেপাধ্যায়কে রাজনীতির ময়দানে নেমে লড়াই করার আহ্বান জানিয়েছিলেন। রবিবার সেই আহ্বানের কথাই আরও এক বার মনে করিয়ে দিলেন বিচারপতি। জানালেন, তিনি সেই আহ্বানেই সাড়া দিতে চলেছেন। তবে কোন রাজনৈতিক দলে তিনি যাচ্ছেন, তা এখনও স্পষ্ট করে বলেননি।

বিচারপতি স্পষ্ট করে কিছু না জানালেও জল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছে বিচারপতি কি পদ্ম শিবিরেই যাবেন? আগামী ৬ মার্চ বুধবার বারাসতে সভা করতে আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। মঙ্গলবার রাষ্ট্রপতির কাছে পদত্যাগ পত্র জমা দেবেন বিচারপতি। ফলে অনেকেই, দুইয়ে দুইয়ে চার করা শুরু করেছেন। বিজেপির কয়েকটি সূত্র দাবি করছে, ইস্তফা দেওয়ার কয়েক দিনের মধ্যেই অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় তাদের দলে যোগ দিতে চলেছেন। সে ক্ষেত্রে তাঁকে দলের তরফে লোকসভা ভোটে প্রার্থীও করা হবে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

twenty + 7 =