জিতেন্দ্র তেওয়ারির টুইট ‘দুয়ারে সরকারের পরিষেবার প্রভাব উপনির্বাচনে’, মানতে নারাজ বিজেপি

আসানসোল : ৩ লক্ষ-রও বেশি ভোটে হার হয়েছে বিজেপি প্রার্থী অগ্নিমিত্রা পলের। হারের কারণ নিয়ে শুরু হয়েছে নানা ব্যাখ্যা। বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার দাবি করেছেন, সন্ত্রাসের কারণে তাদের পরাজয়। অন্যদিকে বিজেপি প্রার্থী অগ্নিমিত্রা পলও একই দাবি করেছেন। এবার ভিন্নসুরে কথা বললেন বিজেপি নেতা জিতেন্দ্র তেওয়ারি। তিনি টুইট করে দাবি করেন, রাজ্য সরকারের কন্যাশ্রী, সবুজসাথী, লক্ষ্মীভাণ্ডার, স্বাস্থ্যসাথী, দুয়ারে সরকারের পরিষেবার প্রভাব পড়েছে আসানসোল লোকসভা উপনির্বাচনে।

এই টুইটের মিনিট ২০ পর আবার একটি টুইট করেন তিনি। সেখানে দাবি করেন ২০২১ সালের ভোট পরবর্তী হিংসা আর সন্ত্রাসের প্রভাব এখনও রয়ে গিয়েছে। বহু মানুষ ভয়ে বুথ-মুখী হননি। এই টুইট নিয়ে তৈরি হয়েছে বিতর্ক। তৃণমূল নেতৃত্বের দাবি, রাজ্য সরকার মানুষের জন্য পরিষেবা দিচ্ছেন। এ কথা তাঁরা আগেই বলেছিলেন। এখন বিজেপি নেতৃত্বও একই দাবি করেছেন। তৃণমূল সরকার মানুষের পাশে থাকে সর্বদা। বিজেপি নয়। উপনির্বাচনের ফলাফলেই তা প্রমাণিত। অন্যদিকে সন্ত্রাসের তত্ব উড়িয়ে দিয়েছেন তৃণমূল নেতৃত্ব।

সংবাদ মাধ্যমকে বিজেপি নেতা জিতেন্দ্র তিওয়ারি জানান, রাজ্য সরকারের বিভিন্ন জনমুখি প্রকল্প নিয়ে তৃনমূল কংগ্রেস মানুষের কাছে গিয়েছেন এবং ভোটারদের উদ্দেশ্যে বলেছেন তৃনমূল-কে ভোট না দিলে লক্ষ্মীভাণ্ডার, স্বাস্থ্যসাথী এবং বিভিন্ন প্রকল্পের লাভ পাবেন না তারা। অথচ, কেন্দ্রের প্রকল্পগুলি প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা, উজ্জ্বলা (গ্যাস) যোজনা, কৃষকদের ভাতা এই সমস্ত জনমুখী প্রকল্প নিয়ে মানুষের কাছে ঠিকমত পৌঁছতে পারেনি বিজেপি এবং ভোটারদের নিজেদের কথা স্পষ্ট ভাবে বোঝাতে অসফল হয়েছে দল তাই উপনির্বাচনে এই পরিণাম। তবে তিনি জানান, উপনির্বাচনের ক্ষেত্রে পালরা ভারী থাকে রাজ্যের শাসক দলেরই, তার লাভ পেয়েছে তৃনমূল কংগ্রেস। তিনি বলেন, ভোট পরবর্তী সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে আসানসোল শহরে পুরসভার নিরিখে তৃনমূলের অনেক হেবিওয়েট প্রার্থী হেরেছেন লোকসভা উপনির্বাচনে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eight + four =