হনুমান জয়ন্তীতে বড় ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর,বাংলাতেও তৈরি হবে বিশালাকার হনুমান মূর্তি

হনুমান জয়ন্তীতে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে শিমলা, গুজরাতের পর বাংলাতেও বিশালাকার হনুমান মূর্তি তৈরির কথা ঘোষণা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi)। সূত্রের খবর, কেন্দ্রের মোদি সরকার দেশের চার প্রান্তে হনুমানজির বিশালাকার মূর্তি গড়তে চায়। তার চতুর্থ রাজ্য হিসাবে বেছে নেওয়া হয়েছে এরাজ্যকে।

শনিবার গুজরাটের মোরভিতে ১০৮ ফুট উঁচু হনুমান মূর্তির উন্মোচন করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সেই সভাতেই মোদি ইঙ্গিত দিয়েছেন, আগামী দিনে বাংলাতেও বিশালাকায় একটি হনুমান মূর্তি গড়া হবে। এদিনের ভারচুয়াল সভায় মোদি বলেন, ‘দেশের বিভিন্ন প্রান্তে এই ধরনের হনুমানজির মূর্তি স্থাপন করা হচ্ছে। শিমলাতে কয়েক বছর আগেই হনুমানজির (Hanuman) বিরাট মূর্তি তৈরি হয়েছে। আজ মোরভিতে হনুমানজির বিরাট মন্দির স্থাপন করা হল। আমাকে বলা হয়ছে আগামী দিনে দেশের আরও দুই প্রান্তে এই ধরনের মূর্তি তৈরি হবে। এরপর রামেশ্বরম এবং পশ্চিমবঙ্গে হনুমানজির মূর্তি তৈরি হবে।’

শনিবার বেলা এগারোটা নাগাদ দিল্লি থেকে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে ভগবান হনুমানের ১০৮ ফুট উচ্চতার মূর্তি উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী। ভগবান হনুমানের বিশালাকার মূর্তি উদ্বোধন করার পর প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, হনুমান জয়ন্তীর শুভক্ষণে আপনাদের সকলকে এবং সমস্ত দেশবাসীকে অনেক অনেক শুভেচ্ছা। শুভ দিনে মোরবিতে হনুমানজির এই বিশাল মূর্তি উন্মোচিত করা হয়েছে। আমাদের দেশ এবং বিশ্বে, ভগবান হনুমানের ভক্তদের জন্য ও রাম ভক্তদের জন্য আজ অত্যন্ত আনন্দের দিন। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, হনুমানজি নিজের ভক্তি ও সেবাভাব দিয়ে সকলকে যুক্ত করেন। সবাই হনুমানজির থেকে অনুপ্রেরণা পায়।

প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর (PMO) সূত্রের খবর, ‘হনুমানজির চার ধাম’ নামের একটি বৃহৎ পরিকল্পনা নিয়েছে কেন্দ্র। মূল উদ্দেশ্য ধর্মীয় পর্যটনে উৎসাহ বাড়ানো। এই প্রকল্পের অংশ হিসাবেই বাংলাকে বেছে নেওয়া হয়েছে। যদিও বাংলার কোথায় এই ধরনের মূর্তি তৈরি হবে, বা কাদের টাকায় তৈরি হবে, সেসব বিস্তারিত এখনও জানানো হয়নি কেন্দ্রের তরফে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 − 2 =