ঋদ্ধিমানকে পাঠানো হুমকি মেসেজের জন্য অভিযুক্ত সাংবাদিকের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নিতে পারে বোর্ড

ঋদ্ধিমান সাহা বনাম সাংবাদিক বিতর্কে সংশ্লিষ্ট ভারতীয় সাংবাদিকের বিরুদ্ধে হয়তো পদক্ষেপ করতে পারে ভারতীয় বোর্ড। অন্তত তেমনই শোনা যাচ্ছে। তবে কী ধরনের পদক্ষেপ, সেটা এখনও স্পষ্ট নয়।

মাসখানেক আগে ভারতীয় সাংবাদিকের সঙ্গে ঋদ্ধিমান সাহার হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটকে ঘিরে তোলপাড় পড়ে গিয়েছিল ভারতীয় ক্রিকেটে। ঋদ্ধিমান নিজেই সেই হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট তুলে দিয়েছিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। যেখানে দেখা যায়, ঋদ্ধিমান সাক্ষাৎকার না দেওয়ায় সেই সাংবাদিক লিখেছেন যে, তিনি আর কোনও দিন সাক্ষাৎকার নেবেন না ঋদ্ধিমানের। সঙ্গে তিনি এটাও লেখেন যে, অপমান তিনি ভাল ভাবে নেন না। ঋদ্ধিমান পুরো হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট সোশ্যাল মিডিয়ায় তুলে দিলে চারদিকে শোরগোল পড়ে যায়।

বোর্ড দ্রুত তিন সদস্যের কমিটি বসিয়ে দেয়। ঋদ্ধিমান গিয়ে যা বলার বলে আসেন। ঘটনাচক্রে ঋদ্ধি যেদিন বোর্ডের এই কমিটিকে অভিযুক্ত সাংবাদিকের নাম এবং বিস্তারিত জানিয়ে এলেন, সেদিন গভীর রাতে নিজেই প্রকাশ্যে আসেন অভিযুক্ত। নিজের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেলগুলোতে একটি ভিডিও পোস্ট করে বোরিয়া মজুমদার স্বীকার করে নেন যে, ঋদ্ধি যে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে অভিযোগ করছেন, সেটা তিনিই। তবে, পালটা ঋদ্ধির বিরুদ্ধেও আঙুল তোলেন তিনি। বোরিয়া মজুমদারের অভিযোগ ছিল, টিম ইন্ডিয়ার ইউকেটরক্ষক তাঁর পাঠানো মেসেজের স্ক্রিনশট বিকৃত করেছেন।

পরে বোর্ডের কমিটির তরফে বোরিয়াকেও ডাকা হয়। তাঁর যুক্তিও শুনেছে বোর্ডের গড়ে দেওয়া তিন সদস্যের কমিটি। কিন্তু শোনা যাচ্ছে, তাঁর যুক্তিতে খুব একটা সন্তুষ্ট নন তদন্তকারীরা। তাঁদের রিপোর্টের ভিত্তিতেই সংশ্লিষ্ট সেই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করার কথা ভাবছে বোর্ড। যে রিপোর্ট পেশ করা হয়েছে কমিটির পক্ষ থেকে সেখানে নাকি সাংবাদিকের পক্ষে বিশেষ কিছু লেখা নেই। এখন দেখার, আগামী কয়েক দিনে বোর্ড ভারতীয় সাংবাদিক বনাম ঋদ্ধিমান মামলায় কী চূড়ান্ত রায় দেয়।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three + 11 =