বাবুঘাট থেকে সরছে দীর্ঘদিনের বাসস্ট্যান্ড, নতুন ঠিকানা হবে সাঁতরাগাছি, নির্দেশ রাজ্যের

কলকাতা: আদালতের নির্দেশ মেনে দু’সপ্তাহের মধ্যে বাবুঘাট থেকে বাসস্ট্যান্ড সরিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দিল রাজ্য সরকার। আগামী দু’সপ্তাহের মধ্যে বাবুঘাট বাসস্ট্যান্ড সাঁতরাগাছিতে সরিয়ে নিয়ে যেতে হবে জানিয়ে রাজ্যের পরিবহণ দফতর সমস্ত বাস-মিনিবাস মালিক সংগঠনকে চিঠি দিয়েছে।
বাবুঘাট স্ট্যান্ডে চারটি রুটের শতাধিক বাস থাকে। এছাড়া আন্তঃরাজ্যেরও বহু বাস থাকে। এই বাসস্ট্যান্ড নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই একাধিক মামলা হয়েছে। অভিযোগ, বাসস্ট্যান্ডের ভিড়, ধোঁয়া, রাসায়নিকের প্রভাব পড়ছে ময়দানে। পরিবেশ দূষণ হচ্ছে। ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালের পরিবেশও নষ্ট হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বাসস্ট্যান্ড সরাতে চেয়ে আদালতে একাধিক মামলাও হয়েছে। তাতেই আদালত নির্দেশ দিয়েছে বাসস্ট্যান্ড সরানোর।
জানা গিয়েছে, বহুদিন ধরেই সাঁতরাগাছির স্ট্যান্ডটি তৈরি হয়ে পড়ে রয়েছে। বারবার বলেও বাসস্ট্যান্ড সরানো যায়নি। এবার নির্দেশিকা জারি করা হল।
উল্লেখ্য, ধর্মতলা ও বাবুঘাটে বাসস্ট্যান্ডকে কেন্দ্র করে বিবাদের সূত্রপাত সেই ২০০২ সালে। ধর্মতলা ও বাবুঘাটে বাসস্ট্যান্ড থাকার কারণে ব্যাপক দূষণ ছড়াচ্ছে এই অভিযোগে হাইকোর্টে একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেন পরিবেশ কর্মী সুভাষ দত্ত। সেই মামলায় ধর্মতলা ও বাবুঘাট থেকে বাসস্ট্যান্ড সরানোর নির্দেশ দেয় বিচারপতি ভাস্কর ভট্টাচার্যর ডিভিশন বেঞ্চ। বাসস্ট্যান্ড সরাতে সময়ও বেঁধে দেন বিচারপতিরা। কিন্তু হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চের এই নির্দেশ চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টে যায় রাজ্য সরকার। সুপ্রিম কোর্ট হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চের নির্দেশই বহাল রাখে। তবে ডিভিশন বেঞ্চের নির্দেশ সামান্য রদবদল করে দেশের শীর্ষ আদালত। হাইকোর্ট বাসস্ট্যান্ড সরাতে যে সময় বেঁধে দিয়েছিল তা খারিজ করে সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে দেয়, রাজ্য সরকার নিজেদের সুবিধামতো বাসস্ট্যান্ড স্থানান্তরের ব্যবস্থা করবে। এই  নির্দেশের পর ফের মামলাটি হাইকোর্টে ফেরত পাঠায় সুপ্রিম কোর্ট। বাসস্ট্যান্ড সরাতে রাজ্য সরকার হাইকোর্টের বিচারপতি অসীম বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চে আবেদন জানায়। বাবুঘাট থেকে আন্তঃরাজ্য বাসস্ট্যান্ড সরিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দেয় কলকাতা হাইকোর্ট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × 5 =