ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় প্রকাশ্যে ছাত্রীকে খুনের চেষ্টা, অবস্থা আশঙ্কাজনক

ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় প্রকাশ্য রাস্তায় অষ্টম শ্রেণির ছাত্রীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে গলায় কোপ মেরে খুনের চেষ্টার অভিযোগ উঠলো স্থানীয় এক যুবকের বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার বিকেল তিনটে নাগাদ এই ঘটনাটি ঘটে পুরাতন মালদা থানার মহিষবাথানি গ্রাম পঞ্চায়েতের আট মাইল এলাকায়। রক্তাক্ত ছাত্রী ও তার সহপাঠীদের চিৎকার শুনে আশেপাশের গ্রামবাসীরা ছুটে আসেন। অভিযুক্ত যুবককে ধাওয়া করলে এলাকা থেকে পালিয়ে যায় সে। এরপরেই সংকটজনক অবস্থায় ওই ছাত্রীকে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করানো হয়েছে মালদা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে। কর্তব্যরত চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন ওই ছাত্রীর অবস্থা আশঙ্কাজনক। জরুরি অস্ত্রোপচার করা হয়েছে।
এদিকে দিনে দুপুরে এমন ঘটনার জেরে চরম আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি হয়েছে পুরাতন মালদার আট মাইল এলাকায়। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, জখম ছাত্রী আট মাইল এলাকার একটি বেসরকারি বাংলা মিডিয়ামের অষ্টম শ্রেণিতে পাঠরত। ওই ছাত্রীর বাড়ি গোয়ালপাড়া এলাকায়। এদিন স্কুল ছুটির পর কয়েকজন সহপাঠীদের সঙ্গে বাড়ি ফিরছিল ওই ছাত্রী। সেই সময় অভিযুক্ত যুবক আচমকায় চাকু নিয়ে ওই ছাত্রীর ওপর হামলা চালায়। প্রকাশ্য রাস্তায় ওই ছাত্রীর গলা কেটে এলোপাথাড়ি কোপ মারতে থাকে। এরপরই অভিযুক্ত ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।

উল্লেখ্য, ২০২২ সালের ২ মে মুর্শিদাবাদের বহরমপুরের গোরাবাজার এলাকায় সন্ধ্যায় কলেজ ছাত্রী সুতপাকে খুন করেছিল তার প্রেমিক। প্রেমের সম্পর্ক থেকে বের হতে চাওয়ায় সকলের সামনেই সুতপাকে খুন করে সুশান্ত চৌধুরী। চোখের সামনে খুন হতে দেখেও আগ্নেয়াস্ত্রের ভয়ে কেউ এগিয়ে আসার সাহস করেননি। এমন নৃশংস ঘটনায় রাজ্য জুড়ে শোরগোল পড়ে যায়। এই ঘটনায় বহরমপুরের ফাস্ট ট্র্যাক কোর্ট অপরাধীকে ফাঁসির সাজা দেয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *