অপহরণ করে মুক্তিপণ চাওয়ার অভিযোগ, ধৃত ৩, উদ্ধার অপহৃত

নিজস্ব প্রতিবেদন, পূর্ব বর্ধমান: এক ব্যক্তিকে অপহরণ করে ৭ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করার অভিযোগ। পুলিশ সূত্রে খবর, মুক্তিপণের সেই টাকা নেওয়ার আগেই বর্ধমান থানার পুলিশের জালে ধরা পড়ে তিন অপহরণকারী। উদ্ধার করা হয় ৩৬ বছর বয়সি অপহৃত রাজু সাঁই নামে ওই ব্যক্তি। ধৃত তিন অভিযুক্তদের নাম শেখ মুলুক চাঁদ (৩৮), বাড়ি দুবরাজদিঘির কেটলিপুকুর এলাকায়। সাবির আলম (৩১), বাড়ি মেহেদিবাগান, মহরমতলা এলাকায় ও জামির শেখ (৩৭), বাড়ি দুবরাজদিঘি এলাকায়। ধৃত তিনজনকে বৃহস্পতিবার বর্ধমান আদালতে পেশ করে পুলিশ।
পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, বুধবার দুপুর দেড়টা নাগাদ ছোটনিলপুর নিবাসী পূজা রজক দাস নামে এক মহিলা বর্ধমান থানায় রাজু সাঁইয়ের অপহরণের বিষয়ে লিখিত অভিযোগ জানান। অভিযোগপত্রে জানানো হয়, রাজু সাঁই স্থানীয় রাজাবাগান এলাকায় তাঁর এক বন্ধুর বাড়ি থেকে বেরিয়ে আসার পর শৈলেন নামের একজনের সঙ্গে আরও তিনজন যুবক রাজুকে তুলে নিয়ে পালিয়ে যায়। লিখিত অভিযোগ পাওয়ার পরই পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করে। বৃহস্পতিবার রাত একটা নাগাদ গোপন সূত্রে খবরের ভিত্তিতে বর্ধমান থানার শোলাপুকুর মসজিদ এলাকায় একটি রেলের পরিত্যক্ত কোয়ার্টারে অভিযান চালিয়ে তিনজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।
যদিও অভিযোগে নাম থাকা আরও একজনের পুলিশ সন্ধান পায়নি। একইসঙ্গে অপ্রহৃত রাজু সাঁইকেও ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ধৃতরা তাদের দোষ স্বীকার করেছে। যদিও কোনওরকম মুক্তিপণ বাবদ টাকার আদান-প্রদান হওয়ার আগেই পুলিশের জালে ধরা পড়ে যায় ওই ৩জন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *