৩ বছরেই ইন্ডিয়া বুক অফ রেকর্ডসে নাম আহিকার

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাঁকুড়া: মাত্র তিনবছর এক মাস বয়সে ইন্ডিয়া বুক অফ রেকর্ডসে নাম তুলে তাক লাগাল বাঁকুড়ার কন্যা। প্রত্যেক বাবা-মায়ের স্বপ্ন থাকে তাঁদের ছেলে-মেয়েদের নিয়ে। কিন্তু একেবারেই ছোটবেলায় মেয়ে সেরার শিরোপা পাবে এতে তো মা বাবার গর্ব হবেই। এরকমই এক দৃষ্টান্তের সাক্ষী থাকল বাঁকুড়া জেলার ইন্দাস ব্লকের পাঁজকোনা গ্রামের শিশুকন্যা আহিকা নন্দী।
বাবা তোতন নন্দী এবং মা শিউলি নন্দীর তিন বছর একমাসের সন্তান আহিকাকে নিয়ে বসবাস ইন্দাস ব্লকের আমরুল অঞ্চলের পাঁজকোনা গ্রামে। আহিকার মা শিউলি দেবী জানান, ছোটবেলা থেকেই সে মন্ত্র উচ্চারণ থেকে শুরু করে ছড়া, কবিতা সবকিছু শুনে শুনে মনে রেখে দিত এবং পরে অনায়াসে বলতেও পারত। সে ইংরেজি সমস্ত মাসের নাম থেকে শুরু করে পতাকার ছবি দেখে সমস্ত দেশের নাম অনর্গল বলে দিতে পারে। আহিকার এই দক্ষতা দেখে তার মা শিউলি দেবী যোগাযোগ করেন ইন্ডিয়া বুক অফ রেকর্ডসের সঙ্গে। তারা আহিকার সমস্ত কিছু বলতে পারা বা লিখতে পারার দক্ষতার প্রমাণ চেয়ে পাঠায়।
তাদের কথা মোতাবেক সবকিছু পাঠানো হলে, তারা ইমেলের মাধ্যমে ‘ইন্ডিয়া বুকস অফ রেকর্ডসে’ কুড়িটা বিভাগে আহিকার মনোনীত হওয়ার কথা জানান। বৈধ নথিপত্র এবং মেয়ের এই ধরনের প্রতিভার প্রমাণ দিয়ে অবশেষে অর্জন করে এই খ্যাতি। কিছুদিন আগেই ইন্ডিয়া বুক অফ রেকর্ডসের এই শিরোপা এসে পৌঁছয় আহিকার পাঁজকোনা গ্রামের বাড়িতে।
আর এই খবর পৌঁছনোর সঙ্গে সঙ্গেই রীতিমতো উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়েন পরিবারের সদস্যরা। এরকম এক শিশুকন্যার জন্য খুবই গর্ব অনুভব করছেন পাঁজকোনা গ্রামের নন্দী দম্পতি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *