৪ দিন পর শিশুর শ্বাসনালী থেকে বাঁশি বের চিকিৎসকদের

নিজস্ব প্রতিবেদন, বর্ধমান: চার দিন ধরে শ্বাসনালীতে আটকে থাকা বাঁশি বের করলেন চিকিৎসকরা। আবারও চিকিৎসা জগতে আলোড়ন ফেললেন পূর্ব বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসকরা। মাত্র চার বছর বয়সি একটি শিশুর শ্বাসনালী থেকে বিনা রক্তপাতে বের করলেন আস্ত একটি বাঁশি।
বিনা রক্তপাতে অস্ত্রোপচারে মাধ্যমে এই বাঁশিটি বের করা হয়। বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, পশ্চিম বর্ধমানের রানিগঞ্জের বাসিন্দা রিভু বাউরি (৪) দিন চারেক আগে বাজারে কেনা চকলেটের সঙ্গে পাওয়া ছোট্ট বাঁশিগিলে ফেলে। পরিবারের লোকজন তাকে প্রথমে স্থানীয় চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যান। কিন্তু বাঁশি বের হয়নি। কষ্ট পাচ্ছিল শিশুটি। সঙ্গে গলা থেকে বাঁশির আওয়াজ আসছিল। সোমবার শিশুটিকে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। সোমবার বিকেলে হাসপাতালে এলে প্রথমে প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা এবং এক্স রে করা হয়। তারপর অস্ত্রোপচার করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বাঁদিকের শ্বাসনালীতে বাঁশিটি আটকে ছিল বলে দেখা যায়।
সোমবার রাতেই অস্ত্রোপচার হয় শিশুটির। নাক কান গলা বিভাগের চিকিৎসক ঋতম রায়,অসীম সরকার, অ্যানেস্থিসিয়া বিভাগের সৌরভ দে সহ অন্যান্য চিকিৎসকদের নিয়ে গঠিত একটি টিম অস্ত্রোপচার করে। আপতত শিশুটি সুস্থ আছে বলে জানান চিকিৎসকরা। শিশুর মা ঊষা বাউরি বলেন, ‘বাঁশিটি গলায় ৪-৫ দিন আটকে ছিল। আমরা খুব ভয় পেয়েছিলাম। কিন্তু, বর্ধমান হাসপাতালে একটুও রক্তপাত না করে শিশুর গলা থেকে এই বাঁশিটি বের করেছে। আমরা হাসপাতালের কাছে কৃতজ্ঞ।’ এই প্রসঙ্গে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজের নাক কান গলা বিভাগের প্রধান সোমনাথ সাহা বলেন, ‘শিশুর শ্বাসনালী থেকে বাঁশি বের করার নজির আমরা রেখেছি।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *