বেপরোয়া চারচাকা গতি হারানোয় দুর্ঘটনা

সাতসকালে শহর কলকাতায় ভয়াবহ পথদুর্ঘটনা।রবিবার সকাল ৬টা নাগাদ এই দুর্ঘটনা ঘটে বালিগঞ্জ ফাঁড়ির কাছেই বিড়লা মন্দিরের পাশে। স্থানীয় সূত্রে খবর, এই দুর্ঘটনার জেরে ফুটপাথের উপর উঠে যায় ক্ষতিগ্রস্ত গাড়িটি। গাড়ির গতিবেগ এতটাই বেশি ছিল যে এই দুর্ঘটনাগ্রস্ত গাড়ির ভিতরে বেরিয়ে আসতে দেখা গেছে এয়ারব্যাগও। এদিকে পুলিশ সূত্রে খবর, বালিগঞ্জ ফাঁড়ি থেকে পার্ক সার্কাস সেভেন পয়েন্টের দিকে যাওয়ার সময় এই দুর্ঘটনা ঘটে। বেপরোয়া গতির কারণেই এই দুর্ঘটনা বলে মনে করা হচ্ছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, দু’টি বিলাসবহুল গাড়িতে এদিন একদল যুবক ফিরছিল। বন্ধুর বিয়েতে গড়িয়ায় গিয়েছিল তাঁরা। ফেরার পথে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে তাঁদের গাড়ি। সূত্রে এ খবরও মিলছে দুর্ঘটনার কবলে পড়া গাড়িতে ছিলেন চারজন। গাড়ি চালাচ্ছিল সেই ৪ বন্ধুরই একজন।কোনওভাবে তা গতি নিয়ন্ত্রণ করতে না পেরে রাস্তার ধারে থাকা একটি বিদ্যুতের খুঁটিতে সজোরে ধাক্কা মারে। ধাক্কার প্রতিঘাতে একেবারে দুমড়ে মুচড়ে যায় দুধসাদা গাড়িটি। সঙ্গে এও জানা গিয়েছে দুর্ঘটনার পরই গাড়িতে থাকা দলটি অপর গাড়িতে চেপে ঘটনাস্থল থেকে বেরিয়ে যায়। খবর পেয়ে আসে বালিগঞ্জ থানার পুলিশ। ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরার ফুটেজ দেখে তদন্ত শুরু করেন থানার আধিকারিকেরা। সিসিটিভি ফুটেজ দেখার সঙ্গে কি কারণে এই দুর্ঘটনা তাও জানার চেষ্টা চলছে। তীব্র গতির কারণে দুর্ঘটনা কিনা তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

গাড়িতে যে যুবকরা ছিলেন, তাঁদেরই একজনের বাবা সকালে পুলিশের সঙ্গে দেখা করতে আসেন। তনবির আহমেদ নামে ওই ব্যক্তি পুলিশের কাছে জানান তাঁর ছেলে গড়িয়ায় বিয়ে বাড়িতে গিয়েছিল। ছেলে এবং ওর দু’টো বন্ধু ছিল গাড়িতে। গাড়ি অন্য একজন চালাচ্ছিলেন। ওর এক বন্ধুরই গাড়ি। বিয়ে বাড়ি থেকে ফেরার পথে দুর্ঘটনা ঘটে। তবে ওদের কারও কোনও ক্ষতি হয়নি। তবে গাড়িটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *